টিপস

বিনিময় একাউন্ট রেজিস্টার, সুবিধা, ব্যবহার, কাজ (বিস্তারিত)

ভাবুন তো বিকাশ থেকে টাকা যাচ্ছে রকেটে, তাহলে কতই না সুবিধা হতো। সম্মানিত পাঠক, সেই সুবিধা দেওয়ার জন্য বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক চালু হতে যাচ্ছে বিনিময়ে। এর মাধ্যমে এক ব্যাংক অ্যাকাউন্ট হতে অন্য ব্যাংক অ্যাকাউন্টে খুব সহজে টাকা পাঠানোর যাবে। মোবাইল ব্যাংকিং বা ই-কমার্স ওয়েবসাইট গুলো টাকা এক কোম্পানির অ্যাকাউন্ট হতে অন্য কোম্পানির একাউন্টে পাঠানো যাবে। মোবাইল ব্যাংকিং সেবা দান প্রতিষ্ঠান বিকাশ এবং রকেট এই সেবা সর্বপ্রথম চালু করছে। অর্থাৎ আপনি আপনার বিকাশ একাউন্ট হতে খুব সহজেই রকেট একাউন্টে টাকা পাঠাতে পারবেন। কিভাবে পাঠাবেন এই বিষয় নিয়ে আজকের এই অনুচ্ছেদে আলোচনা করা হয়েছে।

এই কাজটি সম্পাদন করেছে বিনিময়। অর্থাৎ বিনিময়ের মাধ্যমে খুব সহজে এক ব্যাংক অ্যাকাউন্ট হতে অন্য ব্যাংকের একাউন্টে টাকা পাঠানো যাচ্ছে। আগামীকাল ১৩ ই নভেম্বর এটি বাংলাদেশ চালু হবে। কিভাবে বিনিময়ে অ্যাকাউন্ট তৈরি করবেন এবং বিনিময়ে একাউন্টে কি কি সুবিধা উপভোগ করতে পারবেন সে বিষয়ে নিচে তুলে ধরা হয়েছে।

বিনিময় একাউন্ট রেজিস্টার করার নিয়ম

বর্তমান সময়ে খুব সহজে বিনিময় এখন খোলা যাচ্ছে। যেহেতু মোবাইল ব্যাংকিং প্রতিষ্ঠান বিকাশ এবং রকেট সর্বপ্রথম এই সেবাটি চালু করল তাই বিকাশ এবং রকেটের মাধ্যমে খুব সহজেই বিনিময় এখন চালু করা যায়। এর জন্য আপনাকে কিছু প্রয়োজনীয় কাগজপত্র বা তথ্য লাগবে। আপনি যদি বিকাশ থেকে রকেটে টাকা পাঠাতে চান তাহলে আপনার বিকাশে বিনিময় অ্যাকাউন্ট লাগবে আবার রকেটেও বিনিময় অ্যাকাউন্ট লাগবে। আসুন কিভাবে বিনিময়ে অ্যাকাউন্ট তৈরি করা যায় সে বিষয়ে আলোচনা করি।

  • বিকাশ অ্যাপস এ লগইন করে প্রবেশ করার পর একটু নিচের দিকে আসবেন।
  • সেখানে বিনিময় নামক একটি অপশন দেখতে পারবেন।
  • বিনিময় অপশনটিতে ক্লিক করলে রেজিস্ট্রেশন করতে বলা হবে।
  • আপনার প্রয়োজনীয় তথ্য দিয়ে রেজিস্ট্রেশন সম্পন্ন করবেন।
  • রেজিস্ট্রেশন করার সময় টিন সার্টিফিকেট এর নাম্বার চাইবে। টিম সার্টিফিকেটের নাম্বার ব্যবহারের ক্ষেত্রে সতর্ক হোন। আপাতত ভুয়া টিম সার্টিফিকেট নাম্বার দিয়ে এ কাজ চালিয়ে নিতে পারবেন।
  • এরপর ৬ ডিজিটের নাম্বার দিয়ে সাবমিট করলেই আপনার বিনিময়ে অ্যাকাউন্ট চালু হয়ে যাবে।
  • বিনিময় ইউজার আইডি খোলা শেষ। প্রতিটা MFS অথবা ব্যাংক একাউন্ট এর জন্যে আলাদা আলাদা বিনিময় আইডি খুলতে হবে। এটি কিছু ইমেইল আইডি’র মত দেখতে হবে।
  • সেলফিনে ঢুকে ফান্ড ট্রান্সফার অপশন থেকে ইসলামি ব্যাংকের জন্যে একটি বিনিময় একাউন্ট খুলে নিন। বিনিময় আইডি টু বিনিময় আইডি লেনদেন হবে।
  • বিকাশে আবার বিনিময় অপশনে ক্লিক করুন।
  • Direct Pay তে ক্লিক করুন এবং এমাউন্ট, রেফারেন্স দিয়ে যে একাউন্টে সেন্ড করবেন সেই বিনিময় আইডি দিয়ে পিন দিয়ে কনফার্ম করুন।
  • বিকাশ লেনদেনে গেলে লেনদেন সম্পর্কিত তথ্য বা প্রমানক দেখতে পারবেন।

বিনিময় অ্যাপস এর সুবিধা

বিনিময় apps এর নানাবিধ সুযোগ-সুবিধা আছে। নিচে আমি বিনিময় অ্যাপস এর কিছু সুযোগ সুবিধা তুলে ধরব।

  1. আপনার প্রচলিত বিকাশ কিংবা রকেটের অ্যাপস থেকে বিনিময়ে এখন পরিচালনা করা যায়।
  2. প্রয়োজনের সময় বিকাশ হতে আপনার কাঙ্খিত ব্যক্তিকে রকেটে টাকা পাঠাতে পারবেন।
  3. প্রাথমিক অবস্থায় কোন প্রকার চার্জ প্রদান করতে হচ্ছে না।
  4. এটি একটি সরকারি প্রতিষ্ঠান। বাংলাদেশ সরকার দ্বারা নিয়ন্ত্রিত তাই টাকার শতভাগ নিশ্চয়তা বা নিরাপত্তা আছে।
  5. মেট্রোরেলের ভাড়া, টোল দেওয়া, এনবিআরের সেবা ও বিভিন্ন পরিষেবা বিল যুক্ত হবে।

বিনিময় একাউন্টের কাজ

বিনিময় একাউন্ট দিয়ে মূলত টাকা লেনদেন করা বা ফান্ড ট্রান্সফারের কাজে ব্যবহার করা যাবে। এটি এমন একটি ব্যবস্থা চালু করছে যার মাধ্যমে আপনার এক ব্যাংক একাউন্ট হতে অন্য ব্যাংক একাউন্টে টাকা পাঠানো যাবে। ঝুট ঝামেলা ছাড়াই যে কোন একাউন্টে আপনি টাকা পাঠাতে পারবেন শুধুমাত্র বিনিময় একাউন্টের মাধ্যমে। মেট্রোরেলের ভাড়া, টোল দেওয়া, এনবিআরের সেবা ও বিভিন্ন পরিষেবা বিল যুক্ত হবে।

গ্রাহক দুটি অপশন দেখতে পাবেন ‘সেন্ড মানি’ ও ‘রিসিভ মানি’। গ্রাহক যদি কাউকে টাকা পাঠাতে চান, তখন সেন্ড মানি অপশনে গেলে নিজের যেসব আর্থিক প্রতিষ্ঠানে গ্রাহকের অ্যাকাউন্ট আছে, তা থেকে একটি বেছে নিতে হবে। এবার যাঁকে পাঠাবেন, তাঁর মুঠোফোন নম্বর বা ইতিমধ্যে যদি ওই ব্যক্তির বিনিময়ে আইডি থাকে, সে আইডি নম্বর দিয়ে টাকা পাঠানো যাবে। আর যাঁকে টাকা পাঠানো হলো, তিনি ‘রিসিভ মানি’ অপশনে গিয়ে নিজের অ্যাকাউন্টে থাকা যেকোনো আর্থিক প্রতিষ্ঠানের নম্বরে টাকাটা গ্রহণ করতে পারবেন।

Md Jahidul Islam

আমি মোঃ জাহিদুল ইসলাম। জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলা বিভাগ হতে স্নাতক এবং স্নাতকোত্তর ডিগ্রি সম্পন্ন করে 2018 সাল থেকে সমাজের অর্থনৈতিক, রাজনৈতিক, সামাজিক,মানবিক দৃষ্টিভঙ্গি অবলোকন করে- জীবনকে পরিপূর্ণ আঙ্গিকে নতুন করে সাজানোর আশাবাদী। নতুনের প্রতি মানুষের আকর্ষণ চিরস্থায়ী- তাই নবরুপ ওয়েবসাইটে নিয়মিত লেখালেখি করি।
Back to top button