টিপস

হিন্দু বিয়ের তারিখ ২০২২ (বাংলা ১৪২৯) সকল মাসের

বিবাহের তারিখ ও সময় লগ্ন এই নিবন্ধে আলোচনা করা হবে। হিন্দু বিবাহের ক্ষেত্রে দিন তারিখ বিবাহ লগ্ন অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। অধিকাংশ হিন্দুরা মনে করে লগ্ন ছাড়া বিয়ে করা অশুভ কন। তাই প্রত্যেক হিন্দুরাই ব্লগ নিয়েই বিয়ে করার কথা ভাবে। আপনি যদি 2022 সালে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হতে চাচ্ছেন? আপনাকে আমরা আগাম অভিনন্দন জানাচ্ছি। আপনি আমাদের ওয়েবসাইট থেকে বিবাহের দিন তারিখ এবং লগ্ন দেখে নিতে পারেন। লোকনাথ পঞ্জিকা মতে আমরা এই নিবন্ধে বিবাহের দিন তারিখ গুলো উল্লেখ করেছি। এখান থেকে খুব সহজে বিবাহ দিন গুলো দেখে নিতে পারেন।

হিন্দু বিবাহ দুটি ব্যক্তি (বেশিরভাগই পুরুষ এবং মহিলা) চূড়ান্ত অনন্তকাল ধরে সমন্বিত করে, যাতে তারা ধর্ম (দায়িত্ব / কর্তব্য), আর্থ (অর্থ) এবং কাম অনুসরণ করতে পারে। এটি স্ত্রী বা স্ত্রী হিসাবে দুটি ব্যক্তির একটি ইউনিয়ন এবং জীবন্ত ধারাবাহিকতা দ্বারা স্বীকৃত। হিন্দু ধর্মে বিবাহ সম্পন্ন হওয়ার জন্য গতানুগতিক রীতি অনুসরণ করে না। প্রকৃতপক্ষে, বিবাহ সম্পূর্ণরূপে বা বৈধ হিসাবে বিবেচিত হয় এমনকি বিবাহ দুটি আত্মার মধ্যে হয় এবং এটি শরীরের বাইরে। এটি দুটি পরিবারকে একসাথে যোগ দেয়। অনুকূল রঙগুলি এই উপলক্ষে সাধারণত লাল এবং সোনার হয়।

হিন্দু বিয়ের তারিখ ১৪২৯

হিন্দু বিবাহ রীতি অনুযায়ী বিবাহ সম্পন্ন করার জন্য গতানুগতিক রীতি অনুসরণ করা হয় না বরং বিভিন্ন ধরনের নিয়ম কারণ অনুষ্ঠান সম্পন্ন করতে হয়। প্রকৃতপক্ষে, বিবাহ সম্পন্ন বৈধ বলে বিবেচিত হয় কারণ বিবাহ দুটি আত্মার মধ্যে একটি শরীরের বহিঃপ্রকাশ। হিন্দু বিবাহ অনুসারে দুটি পরিবারকে এক সাথে সংযুক্ত করে দেয়। এর জন্য বিবাহের ক্ষেত্রে শুভ লগ্ন এবং তার তিথি তারিখ বিবেচনায় আনা হয়। এতে করে গ্রহ দেবতা ভক্তদের উপর হয়ে দাতব্য জীবনের সুখ সমৃদ্ধি দান করেন। তাই আমরা হিন্দু ধর্মালম্বী ভাই-বোনদের সুবিধার্থে এই নিবন্ধে 2022 সালের বিবাহের তারিখ গুলো উল্লেখ করলাম।

হিন্দু বিয়ের তারিখ ২০২২

মানুষ দলবদ্ধ হয়ে বসবাস করা টা তো সেই গুহাবাসী অবস্থায় শিখিয়েছিল। কালের পরিক্রমায় মানুষ বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হওয়া প্রচলন শুরু করেছে। হিন্দু ধর্ম মতে নির্দিষ্ট তিথি নক্ষত্র অনুযায়ী বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হতে হয়। হিন্দুরা মনে করে বিবাহ দিন অত্তন্ত শুভকর হওয়া দরকার। কারণ একজন সঙ্গিনীকে নিয়ে সারা জীবন ব্যয় করবো আমি। এর জন্য কিছুটা ধৈর্য ধরতে হয়। তারপর আগুন এবং প্রজাপতি ঋষি কে সাক্ষী রেখে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হতে হয়। আজকের এই নিবন্ধে আমরা 2022 সালে হিন্দু বিবাহের তারিখ উল্লেখ করেছে এখান থেকে হিন্দু বিবাহের সবগুলো তারিখ আপনি পাবেন।

  • জানুয়ারি ২০২২–এই মাসের ২২, ২৩, ২৪ ও ২৫ জানুয়ারি বিয়ের জন্য শুভ মুহূর্ত রয়েছে।
  • ফেব্রুয়ারি ২০২২–এই মাসের ৫,৬,৭,৯,০,১২,১৮,১৯,২০ ও ২২ তারিখ বিয়ের জন্য শুভ মুহূর্ত রয়েছে।
  • মার্চ ২০২২–এই মাসে শুধুমাত্র ২টি দিন বিয়ের জন্য শুভ। এ মাসের ৪ ও ৬ তারিখই বিয়ের জন্য শুভ।
  • এপ্রিল ২০২২–এই মাসের ১৪, ১৫, ১৬, ১৭, ১৯, ২০, ২১, ২২, ২৩, ২৪ ও ২৭ তারিখ বিয়ের জন্য শুভ বলে জানা গিয়েছে।
  • মে ২০২২–মে মাসে অক্ষয় তৃতীয়ার (‌২ ও ৩)‌ পাশাপাশি বিয়ের জন্য শুভ দিনগুলি হল ৯,১০,১১, ১২, ১৫, ১৭, ১৮, ১৯, ২০, ২১, ২৬ ও ২৭ তারিখ।
  • জুন ২০২২–জুন মাসে বিয়ের জন্য শুভদিনগুলি হল ১, ৫, ৬, ৭, ৮, ৯, ১০, ১১, ১৩, ১৭, ২৩ ও ২৪ তারিখ।
  • জুলাই ২০২২–জুলাই মাসে ৪, ৬, ৭, ৮ এবং ৯ তারিখটি শুভ সময়।
  • নভেম্বর ২০২২–এই মাসের ২৫, ২৬, ২৮ ও ২৯ তারিখে বিয়ের জন্য শুভ মুহূর্ত রয়েছে।
  • ডিসেম্বর ২০২২–বছরের শেষ মাসে বিয়ের জন্য শুভ সময় হহল ১, ২, ৪, ৭, ৮, ৯ ও ১৪ তারিখ।
  • এই তিনমাসে বিয়ের জন্য কোনও দিন নেই ২০২২ সালে শুধুমাত্র তিন মাসে বিয়ের জন্য কোন শুভ সময় নেই। আসলে আগস্ট, সেপ্টেম্বর ও অক্টোবর মাসে চতুর্মাস আছে। তাই এই তিন মাসে বিয়ের মতো মাঙ্গলিক কাজ হবে না।

 

Md Jahidul Islam

আমি মোঃ জাহিদুল ইসলাম। জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলা বিভাগ হতে স্নাতক এবং স্নাতকোত্তর ডিগ্রি সম্পন্ন করে 2018 সাল থেকে সমাজের অর্থনৈতিক, রাজনৈতিক, সামাজিক,মানবিক দৃষ্টিভঙ্গি অবলোকন করে- জীবনকে পরিপূর্ণ আঙ্গিকে নতুন করে সাজানোর আশাবাদী। নতুনের প্রতি মানুষের আকর্ষণ চিরস্থায়ী- তাই নবরুপ ওয়েবসাইটে নিয়মিত লেখালেখি করি।
Back to top button