টিপস

গেম খেলে টাকা আয় বিকাশে ২০২২

বর্তমান সময় ভিডিও গেম খেলা খুবই জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে। ছেলে মেয়ে থেকে শুরু করে মধ্য বয়স্ক মানুষ পর্যন্ত ভিডিও গেম খেলা খুব পছন্দ করে। আমরা অনেকেই গেম খেলে ঘন্টার পর ঘন্টা অপচয় করে থাকি। কিন্তু আমরা অনেকেই জানিনা কিভাবে ভিডিও গেম খেলে ইনকাম করা যায়। আর এই জন্য আজকের এই ব্লগে আমি কিভাবে ভিডিও গেম খেলে টাকা ইনকাম করা যায় সে সম্পর্কে আপনাদের অবগত করব।

বর্তমান সময়ের জনপ্রিয় ভিডিও গুলোর মধ্যে হল ফ্রী ফায়ার, পাবজি, মোবাইল লিজেন্ড সহ, মোবাইলে ভিডিও গেম খেলার android ভার্সনের অভাব নেই।

আপনারা অনেকেই ভিডিও গেম খেলে ঘন্টার পর ঘন্টা সময় নষ্ট করেন। আমাদের এই আর্টিকেলটি পরে আপনি অবশ্যই উপকৃত হবেন এবং কিভাবে টাকা ইনকাম করবেন সে বিষয়ে বিস্তারিত জানতে পারবেন।

বর্তমান সময়ের সবচেয়ে জনপ্রিয় দুইটি ভিডিও গেমের মধ্যে একটি হল ফ্রী ফায়ার অন্যটি হলো pubg। আপনি যদি খুব ভালো মানের ফ্রী ফায়ার খেলোয়াড় হয়ে থাকেন তাহলে খুব সহজেই মোবাইলে টাকা ইনকাম করতে পারবেন। এই টাকার পরিমাণ কোন অংকেই কম নয় আপনি চাইলে প্রতিমাসে এক লক্ষ টাকার উপরে ইনকাম করতে পারবেন। কিন্তু টাকা ইনকাম করার জন্য আপনাকে কিছু প্রসেস জানতে হবে। আমাদের এই অনুচ্ছেদের আলোচ্য বিষয় কিভাবে ভিডিও গেম খেলে টাকা ইনকাম করা যায়।

কোন কোন গেম খেলে টাকা ইনকাম করা যায়?

বাংলাদেশের প্রচলিত অনেক ধরনের গেম থেকেই টাকা ইনকাম করা যায় অনলাইন হতে। যেমন খুব সাধারন একটি খেলা লুডু এটি থেকেও খুব সহজেই টাকা ইনকাম করা যায়। অপরদিকে ফ্রি ফায়ার পাচ্ছি কল অফ ডিউটি এই গেমগুলো থেকে সবচেয়ে বেশি পরিমাণ টাকা ইনকাম করে থাকেন একজন খেলোয়াড়। এছাড়াও অনলাইন হতে বিভিন্ন ধরনের গেম যেমন: টুয়েন্টি নাইন কার্ড, হাজারী সহ বেশ কিছু গেম আছে যেগুলো থেকে বেশ টাকা ইনকাম করা যায়। কিন্তু আজকের এই নিবন্ধে আলোচ্য বিষয় কিভাবে ভিডিও গেম খেলে টাকা ইনকাম করা যাবে।

ফ্রী ফায়ার খেলে টাকা ইনকাম

ফ্রী ফায়ার গেম খেলে অনেক উপায় টাকা ইনকাম করা যায়। এর মধ্যে জনপ্রিয় কিছু উপায় আজকের এই আর্টিকেলে আলোচনা করা হবে।

অ্যাকাউন্ট বিক্রি করে: আপনি যদি খুব ভালো মানের একজন খেলার হয়ে থাকেন তাহলে খুব সহজেই ফ্রী ফায়ার এ ভালো র্যাংক অর্জন করতে পারবেন। আর আপনি যদি ফ্রি ফায়ারে পাস রেংক এর মধ্যে থাকেন তাহলে প্রতিটি আইডি ১০ হাজার টাকা পর্যন্ত বিক্রি করতে পারবেন। এভাবে আপনি একটি পর একটি আইডি তৈরি করে আইডি বিক্রি করে বিপুল পরিমাণ অর্থ উপার্জন করতে পারবেন।

ডায়মন্ড টপ অফ বিজনেস

আপনারা যারা ফ্রি ফায়ার খেলেন তারা অবশ্যই জানেন ডায়মন্ড কি কাজে লাগে। ফ্রী ফায়ার কিংবা pubg খেলার ডায়মন্ড বেশ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। আপনার পছন্দমত খেলোয়াড়ের চরিত্র পেতে এবং বিভিন্ন ধরনের ওপেন কিনতে খেলোয়াড়ের পোশাক কিনতে ডায়মন্ড ব্যবহার করতে হয়। অনেক খেলোয়ার আছে যারা িয়মিতভাবে ডায়মন্ড ক্রয় করে ফ্রী ফায়ারের র‍্যাক বৃদ্ধি করে। তাই ডায়মন্ড বিজনেস খুব জনপ্রিয়তা লাভ করেছে। আপনি চাইলে ডায়মন্ড বিজনেস আজ থেকে শুরু করতে পারেন। সাধারণত এক ডলার দিয়ে ১০০ ডায়মন্ড বিক্রি করা হয়ে থাকে।

ইউটিউব থেকে ইনকাম

গেম খেলে সবচেয়ে বেশি ইনকাম করা যায় ইউটিউব থেকে। বর্তমানে ইউটিউব থেকে গেমিং চ্যানেল সবচেয়ে জনপ্রিয়তা লাভ করে অতি দ্রুত সময়ে। বাংলাদেশ এবং ভারতে বেশ কিছু ইউটিউব চ্যানেল আছে যেগুলোতে লক্ষ লক্ষ সাবস্ক্রাইবার আছে। এই চ্যানেলগুলোতে শুধুমাত্র গেমিং ভিডিও আপলোড করা হয় এবং প্রত্যেকটি ভিডিওতে মিলন মিলন ভিউয়ার পাওয়া যায়।

আপনি চাইলে আপনার গেমিং স্কিল থেকে খুব সহজেই ভিডিও বানিয়ে ইউটিউবে আপলোড করে টাকা ইনকাম করতে পারেন। এই সম্পর্কে বিস্তারিত নিচে আলোচনা করছি।

গেম খেলে ইউটিউব থেকে টাকা ইনকাম করার জন্য আপনার সর্বপ্রথম ভালো মানের একটি ফোন থাকতে হবে। এরপর আপনার গেমিং স্কিল ভালো হলে আপনি ফ্রি ফায়ার কিংবা pubg যায় খেলুন না কেন সেটি মোবাইলে রেকর্ড করে নিতে হবে। মোবাইলে স্ক্রিন রেকর্ড করার জন্য বেশ কিছু অ্যাপস আছে যেগুলো প্লে স্টোরে সম্পূর্ণ বিনামূল্যে ইন্সটল করা যায়। আপনি মোবাইল দিয়ে গেম খেললেন এবং সেটি স্ক্রিন রেকর্ড করে ভিডিও তৈরি করে ইউটিউবে আপলোড করবেন। এবং সেই ভিডিওর সাথে যদি ফানি ডায়লগ যুক্ত করে দিতে পারেন তাহলে আরো ভালো হয়। এভাবে ২০-৩০ টি ভিডিও আপলোড করলেই দেখবেন আপনার চ্যানেলের সাবস্ক্রাইবার চার-পাঁচ হাজার হয়ে গেছে এবং আপনি অতি সহজেই ইউটিউব মনিটাইজেশন পেয়ে যাবেন।

গেম খেলে ফেসবুক থেকে ইনকাম

উপরের পদ্ধতি ব্যবহার করে গেম খেলে খুব সহজেই ফেসবুক থেকেও ইনকাম করা যাবে। যেমন আপনি গেম খেলে সেই গেমটি ভিডিও রেকর্ড করে যদি ভিডিও তৈরি করেন। তাহলে, সেই ভিডিও ফেসবুকে আপলোড করবেন। দেখবেন আপনার ভিডিওতে হাজার হাজার ভিউয়ার পাচ্ছেন এবং খুব সহজে ফেসবুক মনিটাইজেশন দিয়ে দেবে এবং আপনি ইনকাম করা শুরু করবেন।

সম্মানিত পাঠক, গেম খেলে টাকা ইনকাম করার আরো বেশ কিছু জনপ্রিয় পদ্ধতি আছে। এবং একটি গেমিং চ্যানেল প্রচুর পরিমাণে টাকা ইনকাম করে এর ব্যাপক উদাহরণ আমাদের চারপাশে আছে। তাই আপনি আজ থেকেই গেম খেলে মোবাইলে টাকা ইনকাম করা শুরু করতে পারেন আপনার জন্য শুভকামনা কামনায় এই অনুচ্ছেদটি এখানেই শেষ করছি।

Md Jahidul Islam

আমি মোঃ জাহিদুল ইসলাম। জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলা বিভাগ হতে স্নাতক এবং স্নাতকোত্তর ডিগ্রি সম্পন্ন করে 2018 সাল থেকে সমাজের অর্থনৈতিক, রাজনৈতিক, সামাজিক,মানবিক দৃষ্টিভঙ্গি অবলোকন করে- জীবনকে পরিপূর্ণ আঙ্গিকে নতুন করে সাজানোর আশাবাদী। নতুনের প্রতি মানুষের আকর্ষণ চিরস্থায়ী- তাই নবরুপ ওয়েবসাইটে নিয়মিত লেখালেখি করি।
Back to top button