ট্রাভেল

ঢাকা থেকে চট্টগ্রামের বিমান ভাড়া, সময়সূচী,অনলাইন টিকেট বুকিং ২০২২

ঢাকার পরে চট্টগ্রামকে দ্বিতীয় গুরুত্বপূর্ণ বৃহত্তম নগরী বলে বিবেচনা করা হয়। চট্টগ্রামকে বাণিজ্যিক নগরী বলে ও বলা হয়। দুই শহরের মধ্যে যোগাযোগটাও অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ। প্রতিনিয়ত এই পথে অনেক লোক যাতায়াত করে থাকে ঢাকা টু চট্টগ্রাম। চট্টগ্রাম তথা কক্সবাজার পর্যটকদের একটি বড় বিনোদনের স্থান। এখানে প্রতিনিয়ত হাজারো পর্যটকের আনাগোনা। পর্যটকরা ভ্রমণের জন্য কক্সবাজার এসে অনেক বেশি আনন্দ উপভোগ করে।

ঢাকা থেকে চট্টগ্রামে যাবার উপায়

চট্টগ্রামে ভ্রমণ করার জন্য তিনটি পথ রয়েছে সড়কপথ, রেলপথ, আকাশপথ। যে কোন পথ থেকে আমরা ভ্রমণ করতে পারি। সড়ক পথ দিয়ে ঢাকা থেকে চট্টগ্রামে যাবার জন্য মূলত 3 থেকে 5ঘণ্টা সময় লাগে কিন্তু জ্যামের কারণে 8 থেকে 10 ঘন্টা সময়ের প্রয়োজন হয়। চট্টগ্রামের দূরত্ব 255 কিলোমিটার।

রেলপথ দিয়ে ঢাকা থেকে চট্টগ্রামে যাবার জন্য 4 থেকে 5 ঘন্টা সময় লাগে। এখানে কোন জ্যাম এর সৃষ্টি হয় না। কিন্তু ক্রসিং হলে অনেকটা সময় লাগতে পারে। ভ্রমণ অনেক আনন্দদায়ক তবে সময়ের ব্যাপার টা অনেক সমস্যা করে ফেলে। এখন মানুষ সময়টাকে গুরুত্ব দিতে শিখিয়েছে। মানুষে চায় সময়ের স্বল্পতা করে কোথায় ভ্রমণ করা যায়।

আকাশ পথ দিয়ে মাত্র 40 থেকে 45 মিনিট সময়ের ভিতর ঢাকা থেকে চট্টগ্রামে পৌছাতে পারবেন। এ পথে কোনো জ্যামের সৃষ্টি হয় না কোন ধরনের ঝামেলা পোহাতে হয় না। ফ্লাইট এর ভাড়া ও মানুষের নাগালের ভিতরে আছে। পথে খুব অল্প সময়ের মধ্যে গন্তব্যস্থলে পৌঁছানোর যায় অর্থাৎ ঢাকা থেকে চট্টগ্রামে।

ঢাকা থেকে চট্টগ্রামে যাবার জন্য যে কয়টি ফ্লাইট চলাচল করে

  1. বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স
  2. নভো এয়ারলাইনস
  3. ইউএস বাংলা

ঢাকা থেকে চট্টগ্রামে যাবার জন্য বিমানের ভাড়া নিম্নে প্রদান করা হলো

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স
  • বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সে সুপার সেভার সার্ভিসে জনপ্রতি সর্বনিম্ন3300 টাকা থেকে সর্বোচ্চ 4000 টাকা পর্যন্ত টিকিট পাওয়া যায়।
  • বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স বিজনেস ক্লাসের সার্ভিসে জনপ্রতি সর্বনিম্ন 4000 টাকা থেকে সর্বোচ্চ 9000টাকা পর্যন্ত টিকিট পাওয়া যায়। অনলাইন টিকিট:www.biman-airlines.com
নভোএয়ার এয়ারলাইন্স
  • নভো এয়ার এয়ারলাইন্স এ সার্ভিসে জনপ্রতি স্পেশাল প্রমো জনপ্রতি সর্বনিম্ন 3300 টাকা থেকে সর্বোচ্চ 4000 টাকা পর্যন্ত টিকিট পাওয়া যায়।\
  • নভো এয়ার এয়ারলাইন্স এ সার্ভিসে জন প্রতি সর্বনিম্ন 4000টাকা থেকে সর্বোচ্চ 9000টাকা পর্যন্ত টিকিট পাওয়া যায় অনলাইন টিকিট:www.flynovour.com
ইউএস-বাংলা
  • ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স এ সার্ভিসের জন প্রতি সর্বনিম্ন 3300 টাকা থেকে সর্বোচ্চ 4000 টাকা পর্যন্ত টিকিট পাওয়া যায়।
  • ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স এ সার্ভিসের জনপ্রতি সর্বনিম্ন 4000 টাকা থেকে সর্বোচ্চ 9000 টাকা পর্যন্ত টিকিট পাওয়া যায়। অনলাইন টিকিট:www.usbair.com

বিমানের ভাড়ার পরিবর্তন হতে পারে। এজন্য দায়ী থাকবে বিমান সংস্থা কর্তৃপক্ষ।

ঢাকা থেকে চট্টগ্রামে যাবার জন্য যে কয়টি ফ্লাইট পরিচালনা করে থাকে নিম্নে তা প্রদান করা হলো

  • বাংলাদেশ বিমান এয়ারলাইন্স প্রতিদিন ঢাকা থেকে চট্টগ্রামের উদ্দেশ্যে ছাড়ে ৩থেকে ৭ করে ফ্লাইট।
  • ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স প্রতিদিন ঢাকা থেকে চট্টগ্রামের উদ্দেশ্যে ছাড়ে ৫থেকে ৬টি করে ফ্লাইট।
  • নভো এয়ার এয়ারলাইন্স প্রতিদিন ঢাকা থেকে চট্টগ্রামের উদ্দেশ্যে সাড়ে ৫থেকে ৬ টি করে ফ্লাইট।
  • সপ্তাহে প্রায় প্রতিদিনই ঢাকা থেকে চট্টগ্রামের ফ্লাইট রয়েছে। ঢাকা-চট্টগ্রামে আকাশপথে বর্তমান ফ্ল্যাট সংখ্যা সব থেকে কম বেশি 21 থেকে 30 টির মত।

ঢাকা থেকে চট্টগ্রামে যাবার জন্য টিকিট কিভাবে কাটবেন এ সম্পর্কে কিছু তথ্য প্রদান করা হলো

ভ্রমণ এই শব্দটি শুনলে আমাদের মনের ভিতর কেমন যেন একটা আনন্দের উদ্ভব ঘটে। যদি হয় সেই ভ্রমণটি আকাশপথে তাহলে তো আর কথাই নেই খুশিতে আত্মহারা। আগে একটা কথা ছিল বিমান ভ্রমণের জন্য মানুষ ভাবতে প্রচুর পরিমাণে টাকার প্রয়োজন কিন্তু নাবিমানসংস্থা এখন বিমানে যাতায়াতের জন্য ভাড়া গুলো এমন ভাবে নির্ধারণ করেছে যা সাধারণ মানুষের নাগালের ভিতরে পড়েছে তার ফলে মানুষ যাতায়াতের জন্য ধীমানকে নির্বাচন করতে পেরেছে। মানুষ এখন যথেষ্ট পরিমান আধুনিক সভ্যতার বিকাশ ঘটেছে। মানুষ দূরত্বকে কমিয়ে সময়কে মূল্য দিতে শিখেছে।

বিমানে ঢাকা থেকে চট্টগ্রামে যাতায়াতের জন্য প্রয়োজন হচ্ছে মাত্র 40 থেকে 45 মিনিট সময়। থেকে চট্টগ্রামে যাওয়ার জন্য কোন পাসপোর্ট এর প্রয়োজন হয় না। শুধুমাত্র একটি আইডি কার্ড হলেই হবে নিজের নিরাপত্তার খাতিরে। যার ফলে অল্প সময়ে মানুষ তার গন্তব্যস্থলে পৌঁছে যেতে পারে। আর অপরদিকে সড়কপথ অথবা রেলপথে ঢাকা থেকে চট্টগ্রামে যাবার জন্য দীর্ঘ সময় প্রয়োজন হয়। এজন্য মানুষের ভ্রমণটা কে উপভোগ না করে জার্নিতে পরিণত হয়। ঢাকা থেকে চট্টগ্রামে যাওয়ার জন্য টিকিট বিমান অফিস থেকে কাটতে হবে। আবার চাইলে অনলাইন থেকে ঘরে বসেও টিকিট কাটতে পারেন। আবার কেউ যদি ডিসকাউন্ট এর প্রয়োজন মনে করেন তাহলে ট্রাভেল এজেন্সি থেকে টিকিট ক্রয় করবেন পেলেও পেতে পারেন ডিসকাউন্ট।

পরিশেষে বলতে চাচ্ছি আপনাদের উদ্দেশ্য করেআমরা চেষ্টা করেছি আপনাদের জন্য বিমানের ভাড়া,অনলাইন টিকিট ,সময়সূচী এগুলোর সঠিক তথ্য প্রদান করার আশা করছি এগুলো আপনাদের প্রয়োজন পড়বে। বিমানে যাতায়াত করার জন্য আপনাদের ভ্রমণটি শুভ হোক। ধন্যবাদ আমাদের সঙ্গে থাকার জন্য।

Jahidul Islam

আমি মোঃ জাহিদুল ইসলাম। জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলা বিভাগ হতে স্নাতক এবং স্নাতকোত্তর ডিগ্রি সম্পন্ন করে 2018 সাল থেকে সমাজের অর্থনৈতিক, রাজনৈতিক, সামাজিক,মানবিক দৃষ্টিভঙ্গি অবলোকন করে- জীবনকে পরিপূর্ণ আঙ্গিকে নতুন করে সাজানোর আশাবাদী। নতুনের প্রতি মানুষের আকর্ষণ চিরস্থায়ী- তাই নবরুপ ওয়েবসাইটে নিয়মিত লেখালেখি করি।
Back to top button