ট্রাভেলট্রেন

মৈত্রী এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচি ২০২২, ভাড়া, বন্ধের দিন, অনলাইন টিকেট

সম্মানিত পাঠক, আজকের এই নিবন্ধে আমরা মৈত্রী এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী ও ভাড়া বন্ধের দিন এবং অনলাইন টিকিট বুকিং সিস্টেম সম্পর্কে আলোচনা করতে যাচ্ছি। আপনি যদি মৈত্রী এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী টিকিট মূল্য অনলাইনে অনুসন্ধান করেন তাহলে এই নিবন্ধে আপনাকে স্বাগতম।
বাংলাদেশ এবং ভারতের পশ্চিমবঙ্গের যাতায়াতকারী ট্রেন গুলোর মধ্যে মৈত্রী এক্সপ্রেস ট্রেন অন্যতম। এই ট্রেনটি বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকা হতে যাত্রা শুরু করে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের রাজধানী কোলকাতা পর্যন্ত যাতায়াত করে। তাই এপার ওপার বাংলার সংযোগকারী একমাত্র ট্রেন হল মৈত্রী এক্সপ্রেস। বাংলাদেশ এবং ভারতের মধ্যে যাতায়াতকারী যাত্রীরা যারা সড়কপথে দুই দেশের মধ্যে যাত্রা করে থাকে তাদের মধ্যে অত্যন্ত জনপ্রিয় এই ট্রেন। তাই আজকের এই নিবন্ধে আমরা মৈত্রী এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী এবং টিকেট মূল্য আলোচনা করতে যাচ্ছি।

মৈত্রী এক্সপ্রেস

মৈত্রী এক্সপ্রেস ঢাকা এবং কলকাতার মধ্যে যাতায়াতকারী এক্সপ্রেস ট্রেন। আন্তর্জাতিক মান সম্মত এই ট্রেনটি বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকা হাতে পশ্চিমবঙ্গের রাজধানী কলকাতার মধ্যে নিয়মিতভাবে যাতায়াত করে থাকে। মৈত্রী শব্দের অর্থ বন্ধুত্ব। এই বন্ধুত্বের প্রতীক হিসেবে ২০০৮ সালের ১৪ এপ্রিল পহেলা বৈশাখের দিন এই ট্রেন চালু হয়।ঢাকা থেকে কলকাতার পথের মৈত্রী এক্সপ্রেস এখন সম্পূর্ণ ‘শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত’। বাংলাদেশের তৎকালীন রেলমন্ত্রী মুজিবুল হক শুক্রবার, ১৪ ই এপ্রিল, ২০১৭, সকালে ঢাকা ক্যান্টনমেন্ট স্টেশনে এই নতুন সেবার উদ্বোধন করেন।

মৈত্রী এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচি

মৈত্রী এক্সপ্রেস ট্রেনটি ঢাকা এবং কলকাতার মধ্যে যাতায়াতকারী এক্সপ্রেস ট্রেন। ট্রেনটি সপ্তাহে চারদিন এই রুটে চলাচল করে থাকে। বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকার রেলওয়ে স্টেশন হতে যাত্রা শুরু করে কোলকাতার চিতপুর স্টেশন পর্যন্ত চলাচল করে। আমি মৈত্রী এক্সপ্রেস ট্রেনের বিস্তারিত সময়সূচি তুলে ধরেছি।

দিন যাত্রা স্টেশন গন্তব্য স্টেশন ট্রেন নাম্বার রেক
শুক্রবার ঢাকা কলকাতা ৩১০৭ বাংলাদেশ
শনিবার কলকাতা ঢাকা ৩১০৮ বাংলাদেশ
রবিবার কলকাতা ঢাকা ১৩১০৯ ভারতীয়
সোমবার ঢাকা কলকাতা ১৩১১০ ভারতীয়
মঙ্গলবার কলকাতা ঢাকা ১৩১০৯ ভারতীয়
বুধবার ঢাকা কলকাতা ১৩১১০ ভারতীয়
বৃহস্পতিবার —- —- —- —-

মৈত্রী এক্সপ্রেস ট্রেনের টিকেট মূল্য

মৈত্রী এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী আলোচনা করার পূর্বে একটি বিষয়ে সকলকে বলে রাখা ভালো। দেশে ভ্রমণ করতে হলে সেই দেশের ইমিগ্রেশন বাবদ একটা ভ্রমণ ফি প্রদান করতে হয়। তাই মৈত্রী এক্সপ্রেস ট্রেনের ভ্রমণ করতে হলে টিকেটের সাথে ভ্রমণ পিক সংযুক্ত থাকে। সম্পূর্ণ শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত এই ট্রেনে ভ্রমণ করতে হলে টিকিটের কিরকম মূল্য পরিশোধ করতে হবে সে সম্পর্কে আমি একটি ধারণা দিতে পারি। আমরা একটি টেবিল এর মাধ্যমে মৈত্রী এক্সপ্রেস ট্রেনের ভ্রমণের টিকিট মূল্য তুলে ধরেছি।

ঢাকা থেকে কলকাতাঃ

AC কেবিন – ২৫২২ টাকা + ৩৭৮ টাকা (ভ্যাট)+ ৫০০ টাকা ট্রাভেল ট্যাক্স = ৩৪০০ টাকা

AC চেয়ার – ১৭৪৮ টাকা +২৫২ টাকা ( ভ্যাট ) + ৫০০ ট্রাভেল ট্যাক্স = ২৫০০ টাকা।।

কলকাতা থেকে ঢাকাঃ

AC কেবিন – ২০১৫ রুপি

AC চেয়ার – ১৩৪৫ রুপি

শিশুদের জন্য ৫০% ডিস্কাউন্ট হবে যদি ১ থেকে ৫ বছরের মধ্যে বয়স হয়ে থাকে নতুবা ফুল ভাড়া দিয়ে টিকিট কাটতে হবে। পাসপোর্ট অনুসারে বয়স ধরা হয়ে থাকে।এখানে ডলার হিসেবে দেখানো হয়েছে তবে কিছু কম বেশি হতে পারে কারণ ডলারের রেট চেঞ্জ হতে পারে তবে সেটা সামান্য পরিমাণ কম বেশি হবে।

মৈত্রী এক্সপ্রেস ট্রেনের অনলাইন টিকেট

মৈত্রী এক্সপ্রেস ট্রেনের অনলাইনে টিকিট বুকিং দেওয়া সম্ভব। বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকা হতে মৈত্রী এক্সপ্রেস ট্রেনের ভ্রমণ করতে বাংলাদেশ রেলওয়ে ই টিকিট ওয়েবসাইটে গিয়ে খুব সহজে টিকিট ক্রয় করতে পারবেন।

Md Jahidul Islam

আমি মোঃ জাহিদুল ইসলাম। জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলা বিভাগ হতে স্নাতক এবং স্নাতকোত্তর ডিগ্রি সম্পন্ন করে 2018 সাল থেকে সমাজের অর্থনৈতিক, রাজনৈতিক, সামাজিক,মানবিক দৃষ্টিভঙ্গি অবলোকন করে- জীবনকে পরিপূর্ণ আঙ্গিকে নতুন করে সাজানোর আশাবাদী। নতুনের প্রতি মানুষের আকর্ষণ চিরস্থায়ী- তাই নবরুপ ওয়েবসাইটে নিয়মিত লেখালেখি করি।
Back to top button