ট্রাভেলট্রেন

কিভাবে নতুন নিয়মে অনলাইনে ট্রেনের টিকেট বুকিং দিবেন?

আপনি কি জানেন?কিভাবে নতুন নিয়মে অনলাইনে ট্রেনের টিকিট বুকিং দিবেন। যদি না জানেন কিভাবে নতুন নিয়মে অনলাইনে ট্রেনের টিকিট বুকিং দিবেন তাহলে আমরা আপনাদের জানিয়ে দেবো। আজকের এই নিবন্ধে আমরা কিভাবে নতুন নিয়মে অনলাইনে ট্রেনের টিকিট বুকিং দিবেন সে সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করেছি। পুরো বিষয়টি ভালোভাবে প্রচার জন্য আমার এই নিবন্ধটি মনোযোগ দিয়ে পড়বেন। তাহলে আপনারা কিভাবে নতুন নিয়মে ট্রেনের টিকিট বুকিং দিবেন সে সম্পর্কে জানতে পারবেন।

বাংলাদেশ রেলওয়ে ট্রেনের টিকিট বিক্রয়ের ক্ষেত্রে নতুন ওয়েবসাইট চালু করেছে। নতুন ওয়েবসাইট চালু করার ফলে রেলওয়ে যাত্রী সেবার মান বৃদ্ধি পাবে এবং যাত্রীরা আরো সহজে অনলাইন থেকে ট্রেনের টিকিট ক্রয় করতে পারবে।

তাই আজকের এই নিবন্ধে আমরা নতুন নিয়মে কিভাবে ট্রেনের টিকিট ক্রয় করবেন সে সম্পর্কে আপনাদের অবগত করব। ট্রেনের টিকিট ক্রয় করার পূর্বে আপনাকে ট্রেনের টিকিট বিক্রির অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে। রেজিস্ট্রেশন সম্পন্ন হলে আপনি ট্রেনের টিকিট ক্রয়ের জন্য সম্পূর্ণ তৈরি। তখন আপনি যেকোন সময় ট্রেনের টিকিট ক্রয় করতে। আমরা এই ওয়েবসাইটে ট্রেনের টিকিট ক্রয়ের রেজিস্ট্রেশন পদ্ধতি এবং কিভাবে ট্রেনের টিকিট করার করবেন সে সম্পর্কে বিস্তারিত তুলে ধরেছি।

ট্রেনের টিকিট ক্রয়ের রেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়া

আমরা ট্রেনের টিকিট রেজিস্ট্রেশন এর পদ্ধতি খুব সুন্দর ভাবে তুলে ধরেছি। আশা করি আপনাদের বুঝতে সমস্যা হবে না। আমাদের পদ্ধতি অবলম্বন করে আপনি খুব সহজে ট্রেনের টিকিট ক্রয়ের রেজিস্ট্রেশন পদ্ধতি জানতে পারবেন।

  •  প্রথমে বাংলাদেশ রেলওয়ের ওয়েবসাইটে (www.eticket.railway.gov.bd) প্রবেশ করতে হবে।
  • প্রবেশের পর ওয়েবসাইটের উপরের দিকে রেজিস্ট্রেশন ( Registration) ট্যাব ক্লিক করতে হবে। এতে রেজিস্ট্রেশন নামে নতুন একটি পেজ আসবে। এ পেজে ব্যক্তিগত তথ্যাদি (Personal Information) সংশ্লিষ্ট ঘরগুলো পূরণ করতে হবে। মোবাইল নম্বরে একটি ওটিপি (OTP) চলে আসবে। সেটি সঠিকভাবে পূরণ করে ভেরিফাই (Verify) বাটনে ক্লিক করতে হবে।
  • সব তথ্য ঠিক থাকলে রেজিস্ট্রেশন সফল (Successful) হবে এবং বাংলাদেশ রেলওয়ে নামে নতুন একটি পেজ আসবে। এখানে ইউজার (User) অটো লগ ইন (Log In) হয়ে যাবে।

ট্রেনের টিকিট কেনার পদ্ধতি

এতক্ষণ ট্রেনের টিকিট ক্রয়ের জন্য রেজিস্ট্রেশন পদ্ধতি আপনি ভালো করে বুঝতে পেরেছেন আমরা আশা করছি। এখন আপনার রেজিস্ট্রেশন সম্পন্ন হলে কিভাবে ট্রেনের টিকিট ক্রয় করবেন এবং কিভাবে টাকা পরিশোধ করবেন সে বিষয়ে আমরা জানাচ্ছি।

 প্রথমে বাংলাদেশ রেলওয়ের ওয়েবসাইটে (www.eticket.railway.gov.bd) প্রবেশ করতে হবে।

 অটো লগ ইন (Log In) না হয়ে থাকলে প্যানেলে ই-মেইল ঠিকানা (E-mail address)  ও পাসওয়ার্ড (Password) পূরণ করে  লগ ইন (Log In) বাটনে ক্লিক করতে হবে।

লগ ইনের পর যে পেজটি আসবে তাতে কাঙ্ক্ষিত ভ্রমণ তারিখ, প্রারম্ভিক স্টেশন, গন্তব্য স্টেশন, শ্রেণি পূরণ করে ফাইন্ড টিকিট (Find Ticket) বাটনে ক্লিক করতে হবে। পরের পেজে ট্রেনের নাম, সিট অ্যাভেলেবিলিটি (আসন আছে কি নেই) ও ট্রেন ছাড়ার সময় দেখাবে।

ট্রেন অনুযায়ী ভিউ সিটস (আসন দেখুন) বাটনে ক্লিক করে আসন খালি থাকার সাপেক্ষে পছন্দের আসন (seat) সিলেক্ট করে  কন্টিনিউ পারচেজে  (Continue Purchase) ক্লিক করতে হবে।

অনলাইনে ট্রেনের টিকেট ক্রয় এবং টাকা পেমেন্ট প্রক্রিয়াঃ

এতক্ষণের আলোচনায় আপনি হয়তো বুঝতে পেরেছেন এবং জানতে পেরেছেন কীভাবে ট্রেনে রেজিস্ট্রেশন করবেন এবং কিভাবে টিকিট ক্রয় করবেন। আপনারা সবকিছু ঠিকমতো করলে এখন টাকা পরিশোধ করে টিকিট পাওয়ার পালা। কিভাবে টাকা পরিশোধ করবেন এবং টিকিট নেবেন সে বিষয়ে আলোচনা করছি।

ক্রেডিট কার্ড, ক্যাশ কার্ড কিংবা ব্রাক ব্যাংকের একাউন্ট মারফত যাত্রির জমাকৃত টাকা থেকে টিকেট মূল্য কেটে নেয়া হবে এবং যাত্রীর ই-মেইলে ই-টিকেটটি পাঠিয়ে টিকেট নিশ্চিত করা হয়ে থাকে। এছাড়াও আপনি মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে ট্রেনের টিকিটের টাকা পেমেন্ট করতে পারবেন। মোবাইল ব্যাংকিং এর মধ্যে বিকাশ রকেট অথবা নগত দিয়ে ট্রেনের টিকিটের টাকা পেমেন্ট করা যাবে।

ই-মেইল মেসেজ বক্স থেকে প্রেরিত টিকেটটির প্রিন্ট নিয়ে ফটো আইডিসহ ই-টিকেট প্রদত্ত “Ticket Print Information” প্রদান করে সংশ্লিষ্ট সোর্স ষ্টেশন থেকে যাত্রার পূর্বে ছাপানো টিকেট সংগ্রহ করতে হবে।

আমাদের এতক্ষণের আলোচনায় আপনারা হয়তো বুঝে গেছেন কিভাবে ট্রেনের টিকিট ক্রয় করা যাবে। কোন বিষয় বুঝতে সমস্যা হলে আমাদের ওয়েবসাইটে কমেন্ট করে জানাতে পারেন।

Md Jahidul Islam

আমি মোঃ জাহিদুল ইসলাম। জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলা বিভাগ হতে স্নাতক এবং স্নাতকোত্তর ডিগ্রি সম্পন্ন করে 2018 সাল থেকে সমাজের অর্থনৈতিক, রাজনৈতিক, সামাজিক,মানবিক দৃষ্টিভঙ্গি অবলোকন করে- জীবনকে পরিপূর্ণ আঙ্গিকে নতুন করে সাজানোর আশাবাদী। নতুনের প্রতি মানুষের আকর্ষণ চিরস্থায়ী- তাই নবরুপ ওয়েবসাইটে নিয়মিত লেখালেখি করি।
Back to top button