টিপস

পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে পাসপোর্ট চেক করার নিয়ম ২০২২

সম্মানিত পাঠক, আজকের এই নিবন্ধে আমরা পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে পাসপোর্ট চেক করার বিষয়ে আপনাদের জানাতে এসেছি। আপনি যদি একজন পাসপোর্ট ধারী হয়ে থাকেন এবং আপনার আগের পাসপোর্ট এর মেয়াদ শেষ হলে নতুন পাসপোর্ট করে নেওয়া প্রয়োজন পড়ে। এর জন্য আপনার নতুন পাসপোর্টের টাকা সহ যাবতীয় তথ্য জমা দিয়েছেন। এখন আপনার পাসপোর্ট কবে হাতে পাবেন ? এবং আপনার পাসপোর্ট এর বর্তমান অবস্থান কি এই বিষয়ে জানতে আগ্রহী হয়ে থাকেন তাহলে এই নিবন্ধ আপনাকে স্বাগত জানাচ্ছি। এই নিবন্ধ হতে পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে নতুন পাসপোর্ট চেক করার বিষয়ে আপনাদের অবগত করব।

Government of the people’s Republic of Bangladesh এর আওতায় department of immigration and passport ইমিগ্রেশন ও পাসপোর্ট অধিদপ্তর এর আওতায় বাংলাদেশের সকল ধরনের পাসপোর্ট সরবরাহ করা হয় তাকে। এই অধিদপ্তরের সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী আজকে আমরা পাসপোর্ট বিষয়ে বিস্তারিত জানব। আপনি যদি পাসপোর্ট বিষয়ে জানার আগ্রহ ও পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে পাসপোর্ট চেক করার নিয়ম ২০২২ জানতে চান তাহলে এই নিবন্ধটি ভালো করে দেখে নেবেন।

পাসপোর্ট চেক করার নিয়ম ২০২২

পাসপোর্ট চেক করতে হলে আপনাকে যা করতে হবে সেটি হল আপনার ইন্টারনেট সংযোগ সংবলিত একটি স্মার্ট মোবাইল ফোন অথবা কম্পিউটার লাগবে। এরপর আপনার ডিভাইস এর যেকোনো একটি ব্রাউজারের মাধ্যমে passport.gov.bd ওয়েবসাইটে গিয়ে নিচের নির্দেশনাগুলো অনুসরণ করতে হবে।

উক্ত ওয়েবসাইট এ ক্লিক করলে আপনি এরকম একটি ইন্টারফেস পাবেন। এই ইন্টারনেটে আপনাকে অবশ্যই নিচের তথ্যগুলো দিয়ে পুরন করে সাবমিট করতে হবে। সার্চ বাটনে ক্লিক করতে হবে।

https://www.epassport.gov.bd/authorization/application-status

মার্ক করা স্থানগুলোতে সঠিক তথ্য গ্রহণ করতে হবে।
পাসপোর্ট অফিসের স্লিপ নম্বর এবং আপনার জন্ম তারিখ বসিয়ে সাবমিট বাটনে ক্লিক করতে হবে।

  • পাসপোর্ট অফিসের স্লিপ নম্বর
  • আপনার জন্ম তারিখ বসিয়ে সাবমিট বাটনে ক্লিক করতে হবে।

তাহলে আপনি আপনার পাসপোর্ট বিষয়ক সকল তথ্য পেয়ে যাবেন। পাসপোর্ট তৈরি হয়েছে কিনা এবং কবে নাগাদ আপনি হাতে পাবেন আপনার পাসপোর্ট এর বর্তমান অবস্থা কি এর সকল তথ্য আপনার সামনে প্রদর্শিত হবে।

পাসপোর্ট তৈরির খরচ ২০২২

বর্তমানে বাংলাদেশে ই পাসপোর্ট চলে আসায় আগের পাসপোর্ট করার খরচ হচ্ছে বর্তমানে এ
ই পাসপোর্ট করার খরচ একটু বেড়ে গেছে। বর্তমান বাংলাদেশে 5 বছর এবং 10 বছর মেয়াদি পাসপোর্ট তৈরি করা যায়। সে অনুযায়ী পাসপোর্ট এর খরচ আমি তুলে ধরেছি। এছাড়াও পাসপোর্ট জরুরী এবং সাধারন এই দুই ধরনের হয়ে থাকে। জরুরী পাসপোর্ট করার ক্ষেত্রে খরচ বেশি এবং সাধারণ পাসপোর্ট করার ক্ষেত্রে খরচ কম আমি উভয় ধরনের খরচের বিষয়ে আলোচনা করেছি।

  • ৫ বছর মেয়াদি পাসপোর্ট তৈরিতে খরচ হয় ৪২২৫ টাকা।
  • ৫ বছর মেয়াদী জরুরী পাসপোর্ট তৈরিতে খরচ হয় ৬৩২৫ টাকা।
  • ৫বছর মেয়াদী খুব জরুরী অর্থাৎ ২ কার্যদিবসের মধ্যে পাসপোর্ট পেতে খরচ হয় ৮৬২৫ টাকা।
  • ১০ বছর মেয়াদী রেগুলার পাসপোর্ট তৈরিতে খরচ হয ৫৭৫০ টাকা।
  • ১০ বছর মেয়াদী জরুরী পাসপোর্ট তৈরি করতে খরচ ৮০৫২ টাকা।
  • ১০ দশ বছর মেয়াদী অত্যন্ত জরুরী পাসপোর্ট তৈরি করতে খরচ হয় ১২ হাজার ৭৫ টাকা।

পাসপোর্ট তৈরি হতে কত সময় লাগে

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের ইমিগ্রেশন ও পাসপোর্ট অধিদপ্তর এর ডিজিটালাইজেশনের ফলে অত্যন্ত স্বল্প সময়ের মধ্যে পাসপোর্ট পাওয়া যায়। সে ক্ষেত্রে……

  • রেগুলার ১৫ কার্যদিবস।।
  • জরুরী পাসপোর্ট ৮ কার্যদিবস।
  • অত্যন্ত জরুরী পাসপোর্ট ২ কার্যদিবস।

Md Jahidul Islam

আমি মোঃ জাহিদুল ইসলাম। জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলা বিভাগ হতে স্নাতক এবং স্নাতকোত্তর ডিগ্রি সম্পন্ন করে 2018 সাল থেকে সমাজের অর্থনৈতিক, রাজনৈতিক, সামাজিক,মানবিক দৃষ্টিভঙ্গি অবলোকন করে- জীবনকে পরিপূর্ণ আঙ্গিকে নতুন করে সাজানোর আশাবাদী। নতুনের প্রতি মানুষের আকর্ষণ চিরস্থায়ী- তাই নবরুপ ওয়েবসাইটে নিয়মিত লেখালেখি করি।
Back to top button