শুভেচ্ছা

১৭ মার্চ বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন ২০২২ নিয়ে শুভেচ্ছা, স্ট্যাটাস, উক্তি, ক্যাপশন ও বাণী

১৭ মার্চ বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন ২০২২ নিয়ে শুভেচ্ছা, স্ট্যাটাস, উক্তি, ক্যাপশন ও বাণী। সম্মানিত পাঠক, আজকের এই নিবন্ধে আমরা বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন নিয়ে শুভেচ্ছা, স্ট্যাটাস, ক্যাপশন আলোচনা করব। 17 ই মার্চ জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মদিন উপলক্ষে আপনি যদি অনলাইনে বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন নিয়ে স্ট্যাটাস, উক্তি, ক্যাপশন, অনুসন্ধান করেন তাহলে এই নিবন্ধ আপনাকে স্বাগতম।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯২০ সালের ১৭ মার্চ গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়া গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তার বাবার নাম সৈয়দ লুৎফর রহমান এবং মায়ের নাম সাহারা খাতুন। গোপালগঞ্জের অত্যন্ত প্রভাবশালী এক পরিবারে জন্মগ্রহণ করেছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। তার শৈশব কেটেছিল গোপালগঞ্জে। ছোটবেলায় তিনি গোপালগঞ্জের পারা যায় ঘুরে বেড়িয়েছেন, নদীর পানিতে ঝাঁপ দিয়েছেন। তখন কে ভাবতে এইভাবে একদিন বাংলাদেশের স্বপ্নদ্রষ্টা তথা বাংলাদেশ স্বাধীনতার রূপকার। এই মহান নেতার জন্মদিন উপলক্ষে সকলকে শুভেচ্ছা জানাচ্ছি।

বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন নিয়ে শুভেচ্ছা ২০২২

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম না হলে হয়তো আজ আমাদের এই স্বাধীন বাংলাদেশে থাকতো না। তিনি বাংলাদেশের রূপকার তথা স্বপ্নদ্রষ্টা, বাংলাদেশের স্বাধীনতার মহান স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের 17 মার্চ 1920 সালে জন্মগ্রহণ করেন। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মদিন উপলক্ষে কিছু শুভেচ্ছা বার্তা আজকের এই নিবন্ধে আমরা সংযুক্ত করছি।

***আজ থেকে শতবছর আগে এই বাংলায় জন্মেছিলেন এক মহামানব। তিনি স্বপ্ন দেখেছিলেন দেশকে স্বাধীন করার। শুধু স্বপ্ন দেখেই থেমে যাননি, সেই স্বপ্নকে বাস্তবায়ন করার সাহসও দেখিয়েছেন। তিনি আজ আমাদের মাঝে নেই, কিন্তু তার চেতনা আজও বেঁচে আছে আমাদের মাঝে। আমাদের জাতির পিতাকে তাই জানাই জন্মশতবার্ষিকীর প্রাণঢালা শুভেচ্ছা।

***বিশ্ব দুই শিবিরে বিভক্ত – শোষক আর শোষিত। আমি শোষিতের পক্ষে। শুভ জন্মদিন বঙ্গবন্ধু

***এই স্বাধীন দেশে মানুষ যখন পেট ভরে খেতে পাবে, পাবে মর্যাদাপূর্ণ জীবন; তখনই শুধু এই লাখো শহীদের আত্মা তৃপ্তি পাবে। শুভ জন্মদিন বঙ্গবন্ধু

***দেশ থেকে সর্বপ্রকার অন্যায়, অবিচার ও শোষণ উচ্ছেদ করার জন্য দরকার হলে আমি আমার জীবন উৎসর্গ করব। শুভ জন্মদিন বঙ্গবন্ধু

**আমি যদি বাংলার মানুষের মুখে হাসি ফোটাতে না পারি, আমি যদি দেখি বাংলার মানুষ দুঃখী, আর যদি দেখি বাংলার মানুষ পেট ভরে খায় নাই, তাহলে আমি শান্তিতে মরতে পারব না। শুভ জন্মদিন বঙ্গবন্ধু

বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন নিয়ে স্ট্যাটাস

বাংলাদেশের স্বাধীনতার স্বপ্নদ্রষ্টা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মদিন উপলক্ষে আপনি যদি আপনার সোশ্যাল মিডিয়ার ওয়ালে স্ট্যাটাস দিতে চান, তাহলে এই নিবন্ধ থেকে বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন নিয়ে স্ট্যাটাস সংগ্রহ করে নিতে পারবেন। আমরা এই নিবন্ধে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মদিন উদযাপন উপলক্ষে বেশ কিছু স্ট্যাটাস সংযুক্ত করেছি। এই স্ট্যাটাস গুলো আপনি আপনার সোশ্যাল মিডিয়ার বিভিন্ন ওয়ালে শেয়ার করতে পারবেন। এবং আমাদের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মদিন খুব সুন্দর ভাবে উদযাপন করতে পারবেন।

**বিশ্ব দুই শিবিরে বিভক্ত – শোষক আর শোষিত। আমি শোষিতের পক্ষে। শুভ জন্মদিন বঙ্গবন্ধু

**এই স্বাধীন দেশে মানুষ যখন পেট ভরে খেতে পাবে, পাবে মর্যাদাপূর্ণ জীবন; তখনই শুধু এই লাখো শহীদের আত্মা তৃপ্তি পাবে। শুভ জন্মদিন বঙ্গবন্ধু

***দেশ থেকে সর্বপ্রকার অন্যায়, অবিচার ও শোষণ উচ্ছেদ করার জন্য দরকার হলে আমি আমার জীবন উৎসর্গ করব। শুভ জন্মদিন বঙ্গবন্ধু

***আমি যদি বাংলার মানুষের মুখে হাসি ফোটাতে না পারি, আমি যদি দেখি বাংলার মানুষ দুঃখী, আর যদি দেখি বাংলার মানুষ পেট ভরে খায় নাই, তাহলে আমি শান্তিতে মরতে পারব না। শুভ জন্মদিন বঙ্গবন্ধু

***১০২ তম জন্মবার্ষিকীতে বঙ্গবন্ধুর প্রতি জানাই বিনম্র শ্রদ্ধা। আল্লাহ তাকে বেহেশত নসিব করুক। আ-মীন

***বঙ্গবন্ধু যেদিন হারিয়ে গিয়েছে সেদিন থেকে বাংলার মাটি থেকে অনেক কিছুই হারিয়ে গিয়েছে। আজ সেই ১০২ তম মানুষটির জন্মবার্ষিকী। তার প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করছি, আল্লাহ যেন তাকে ওপারে ভালো রাখে।

***সাত কোটি বাঙ্গালির ভালোবাসার কাঙ্গাল আমি। আমি সব হারাতে পারি, কিন্তু বাংলাদেশের মানুষের ভালোবাসা হারাতে পারব না। শুভ জন্মদিন বঙ্গবন্ধু

বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন নিয়ে উক্তি

বাংলাদেশি বিভিন্ন মতবাদের লোক আছে। কিন্তু এমন কোন বাংলাদেশি বাঙালি কে খুঁজে পাওয়া যাবে না তিনি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে ভালো না বাসেন। সকল দল নির্বিশেষে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মদিন যথাযোগ্য মর্যাদায় উদযাপন করে থাকে। তাই আজকে 17 ই মার্চ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মদিন উদযাপন উপলক্ষে আমরা বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন নিয়ে উক্তি সংযুক্ত করেছি। আপনারা বঙ্গবন্ধুর জন্মদিনের বিভিন্ন প্রোগ্রামে এইসকল উক্তি ব্যবহার করতে পারবেন।

আমি আজ কারো রক্ত চাইতে আসিনি
আমি আমার ভালোবাসার কথা বলতে এসেছিলাম।”

—————শেখ মুজিবুর রহমান

“আমরা বাহান্নতে মরেছি দলে দলে,
আমরা একাত্তরে মরেছি ঝাঁকে ঝাঁকে,
আমরা পঁচাত্তরে মরেছি সপরিবারে।

—————শেখ মুজিবুর রহমান

আমাদের চাষীরা হল সবচেয়ে দুঃখী ও নির্যাতিত শ্রেণী এবং তাদের অবস্থার উন্নতির জন্যে আমাদের উদ্যোগের বিরাট অংশ অবশ্যই তাদের পেছনে নিয়োজিত করতে হবে।

—————শেখ মুজিবুর রহমান

 যিনি যেখানে রয়েছেন, তিনি সেখানে আপন কর্তব্য পালন করলে দেশের মধ্যে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি হতে পারে না।

—————শেখ মুজিবুর রহমান

 সরকারী কর্মচারীদের জনগণের সাথে মিশে যেতে হবে। তারা জনগণের খাদেম, সেবক, ভাই। তারা জনগণের বাপ, জনগণের ছেলে, জনগণের সন্তান। তাদের এই মনোভাব নিয়ে কাজ করতে হবে।

—————শেখ মুজিবুর রহমান

সমস্ত সরকারী কর্মচারীকেই আমি অনুরোধ করি, যাদের অর্থে আমাদের সংসার চলে তাদের সেবা করুন।

—————শেখ মুজিবুর রহমান

বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন নিয়ে ক্যাপশন ও বাণী

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মদিন উদযাপন উপলক্ষে আপনি যদি আপনার সোশ্যাল মিডিয়ার ওয়ালে বঙ্গবন্ধুর ছবি শেয়ার করতে চান তাহলে অবশ্যই একটি ক্যাপশন ব্যবহার করতে হবে। ঠিক সেরকমই কিছু ক্যাপশন আজকের এই নিবন্ধে আমরা যুক্ত করেছি।

সমস্ত সরকারী কর্মচারীকেই আমি অনুরোধ করি, যাদের অর্থে আমাদের সংসার চলে তাদের সেবা করুন।

গরীবের উপর অত্যাচার করলে আল্লাহর কাছে তার জবাব দিতে হবে।

জীবন অত্যন্ত ক্ষণস্থায়ী। এই কথা মনে রাখতে হবে। আমি বা আপনারা সবাই মৃত্যুর পর সামান্য কয়েক গজ কাপড় ছাড়া সাথে আর কিছুই নিয়ে যাব না। তবে কেন আপনারা মানুষকে শোষণ করবেন, মানুষের উপর অত্যাচার করবেন?

ওই নাম যেন বিসুভিয়াসের অগ্নি উগারী বান।
বঙ্গদেশের এ প্রান্ত হতে সকল প্রান্ত ছেয়ে
জ্বালায় জ্বলিছে মহা-কালানল ঝঞ্ঝা অশনি যেয়ে।
… …
বাঙলা দেশের মুকুটবিহীন তুমি প্রসূর্ত রাজ,
প্রতি বাঙালির হৃদয়ে হৃদয়ে তোমার তক্ত তাজ।
(জসীমউদ্দীন/’বঙ্গবন্ধু’)

এ স্বাধীনতা আমার ব্যর্থ হয়ে যাবে যদি আমার বাংলার মানুষ পেট ভরে ভাত না খায়। এই স্বাধীনতা আমার পূর্ণ হবে না যদি বাংলার মা-বোনেরা কাপড় না পায়। এ স্বাধীনতা আমার পূর্ণ হবে না যদি এদেশের মানুষ যারা আমার যুবক শ্রেণী আছে তারা চাকরি না পায় বা কাজ না পায়। শুভ জন্মদিন বঙ্গবন্ধু

আমাদের চাষীরা হল সবচেয়ে দুঃখী ও নির্যাতিত শ্রেণী এবং তাদের অবস্থার উন্নতির জন্যে আমাদের উদ্যোগের বিরাট অংশ অবশ্যই তাদের পেছনে নিয়োজিত করতে হবে। শুভ জন্মদিন বঙ্গবন্ধু

 

Md Jahidul Islam

আমি মোঃ জাহিদুল ইসলাম। জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলা বিভাগ হতে স্নাতক এবং স্নাতকোত্তর ডিগ্রি সম্পন্ন করে 2018 সাল থেকে সমাজের অর্থনৈতিক, রাজনৈতিক, সামাজিক,মানবিক দৃষ্টিভঙ্গি অবলোকন করে- জীবনকে পরিপূর্ণ আঙ্গিকে নতুন করে সাজানোর আশাবাদী। নতুনের প্রতি মানুষের আকর্ষণ চিরস্থায়ী- তাই নবরুপ ওয়েবসাইটে নিয়মিত লেখালেখি করি।
Back to top button