শুভেচ্ছা

মহান স্বাধীনতা দিবসের শুভেচ্ছা বার্তা ২০২২

আজকের এই নিবন্ধে আমরা স্বাধীনতা দিবসের শুভেচ্ছা, বাংলাদেশের স্বাধীনতা দিবসের শুভেচ্ছা বার্তা আলোচনা করব। আপনি যদি স্বাধীনতা দিবসের শুভেচ্ছা বার্তা অনলাইন অনুসন্ধান করেন তাহলে এই নিবন্ধ আপনাকে স্বাগতম। আমরা এই নিবন্ধে স্বাধীনতা দিবসের শুভেচ্ছা বার্তা সংযুক্ত করেছি।

মহান স্বাধীনতা দিবস উদযাপন উপলক্ষে আপনি আপনার প্রিয়জনকে স্বাধীনতা দিবসের শুভেচ্ছা বার্তা পাঠাতে পারেন। এজন্য আমরা এই নিবন্ধের স্বাধীনতা দিবসের শুভেচ্ছা বার্তা সংযুক্ত করে দিয়েছে। আপনারা আমাদের এই নিবন্ধ থেকে স্বাধীনতা দিবসের শুভেচ্ছা বার্তা গুলো সংগ্রহ করে নিতে পারবেন।

ব্রিটিশরা ১৯৪৭ সালের দেশ থেকে চলে যাওয়ার পর আমাদের ভারতীয় উপমহাদেশ থেকে দুইটি ভাগে ভাগ করা যায়। একটি হিন্দুস্থান বর্তমান ভারত ও পাকিস্তান। ভারত পুরো একটি দেশ নিয়ে গঠিত হয় কিন্তু পাকিস্তানের দুইটি অংশ হয় একটি হল পূর্ব পাকিস্তান ও পশ্চিম পাকিস্তান। পূর্ব পাকিস্তান বর্তমানে বাংলাদেশ, পশ্চিম পাকিস্তান বর্তমান পাকিস্তান এই দুটি আলাদা ভূখণ্ড নিয়ে পাকিস্তান নামে নতুন রাষ্ট্রের জন্ম হয়েছিল। পাকিস্তান সৃষ্টির পর থেকে পশ্চিম পাকিস্তানিরা আমাদের সাথে বিমাতাসুলভ আচরণ শুরু করে। তারা আমাদের প্রতিটি ক্ষেত্রে সুযোগ-সুবিধা থেকে বঞ্চিত করে আমাদের শোষণ নিপীড়ন শুরু করে দেয়। এর ফলশ্রুতিতে ১৯৭১ সালে আমরা নয় মাস রক্তক্ষয়ী সংগ্রামের মাধ্যমে স্বাধীনতা লাভ করি।

স্বাধীনতা দিবসের শুভেচ্ছা বার্তা ২০২২

নয় মাস রক্তক্ষয়ী সংগ্রামে এ দেশের প্রায় ত্রিশ লক্ষ মানুষ শহীদ হয়। আরো ২ লক্ষ মা বোনের ইজ্জত লুণ্ঠন করে নেয় পাকিস্তানি সেনারা। এই ত্যাগ-তিতিক্ষার পরে অর্জিত স্বাধীনতা আমাদের অত্যন্ত গৌরবের বিষয়। তাই আজকের এই স্বাধীনতা দিবসে আপনি আপনার প্রিয় জন বন্ধুবান্ধবকে অবশ্যই স্বাধীনতা দিবসের শুভেচ্ছা পাঠাবেন। এর জন্য আজকের এই নিবন্ধে আমরা স্বাধীনতা দিবসের শুভেচ্ছা বার্তা সংযুক্ত করেছি।

  • আমরা সবাই খুব আলাদা, কিন্তু একটি জিনিস আছে যা আমাদের এক করে এবং তা হল স্বাধীনতা। আমাদের এটিকে সম্মান করা উচিত। এই সুন্দর স্বাধীনতা দিবস উপভোগ করুন!
  • আমি ভাগ্যবান যে আমি এই মহান দেশে জন্মগ্রহণ করেছি। আমি গর্বিত যে আমি একজন ভারতীয়। শুভ স্বাধীনতা দিবস!
  • আমাদের অতীতের কথা চিন্তা করুন এবং আমাদের দেশের জন্য একটি উন্নত ভবিষ্যৎ গড়ে তোলার সংকল্প করুন। স্বাধীনতা দিবসের অনেক অনেক শুভেচ্ছা।
  • আপনাকে স্বাধীনতা দিবসের অনেক অনেক শুভেচ্ছা। আপনি এই শুভ দিনটি আপনার প্রিয়জনদের সাথে এবং শহীদদের স্মরণ করে উদযাপন করুন।
  • জাতির প্রতি ভালোবাসার মতো ভালোবাসা নেই এবং ভারতের মতো দেশকে ভালোবাসা সহজ।

২৬ মার্চের শুভেচ্ছা বার্তা ২০২২

স্বাধিকার সংগ্রাম থেকেই মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতা। আজ যদি সেই জাতীয়তাবাদী চেতনা বিসর্জন দিয়ে পশ্চিমি সংস্কৃতির অন্ধ অনুকরণ করি তা আমাদের চরম দীনতা ও নৈতিক পরাজয়। আমাদের বিশ্বায়নের প্রয়োজন নেই, প্রয়োজন বাংলায়ন।
– সৈয়দ আবুল মকসুদ

তাঁর চোখ বাঁধা হলো। বুটের প্রথম লাথি রক্তাক্ত করলো তার মুখ। থ্যাতলানো ঠোঁটজোড়া লালা-রক্তে একাকার হলো, জিভ নাড়তেই দুটো ভাঙা দাঁত ঝরে পড়লো কংক্রিটে। মা…..মাগো….. চেঁচিয়ে উঠলো সে।
– রুদ্র মুহাম্মদ শহীদুল্লাহ

পাঁচশো পঞ্চান্ন মার্কা আধ-খাওয়া একটা সিগারেট প্রথমে স্পর্শ করলো তার বুক। পোড়া মাংসের উৎকট গন্ধ ছড়িয়ে পড়লো ঘরের বাতাসে। জ্বলন্ত সিগারেটের স্পর্শ তার দেহে টসটসে আঙুরের মতো ফোস্কা তুলতে লাগলো।
– রুদ্র মুহাম্মদ শহীদুল্লাহ

তাকে চিৎ করা হলো। পেটের ওপর উঠে এলো দু’জোড়া বুট, কালো ও কর্কশ। কারণ সে তার পাকস্থলির কষ্টের কথা বলেছিলো, বলেছিলো অনাহার ও ক্ষুধার কথা।
– রুদ্র মুহাম্মদ শহীদুল্লাহ

সে তার দেহের বস্ত্রহীনতার কথা বলেছিলো- বুঝি সে-কারণে ফর ফর করে টেনে ছিঁড়ে নেয়া হলো তার শার্ট। প্যান্ট খোলা হলো। সে এখন বিবস্ত্র, বীভৎস।
– রুদ্র মুহাম্মদ শহীদুল্লাহ

সে এখন মৃত। তার শরীর ঘিরে থোকা থোকা কৃষ্ণচূড়ার মতো ছড়িয়ে রয়েছে রক্ত, তাজা লাল রক্ত। তার থ্যাতলানো একখানা হাত পড়ে আছে এদেশের মানচিত্রের ওপর, আর সে হাত থেকে ঝরে পড়ছে রক্তের দুর্বিনীত লাভা-
– রুদ্র মুহাম্মদ শহীদুল্লাহ

কথা ছিলো একটি পতাকা পেলে আমাদের সব দুঃখ জমা দেবো যৌথ-খামারে, সম্মিলিত বৈজ্ঞানিক চাষাবাদে সমান সুখের ভাগ সকলেই নিয়ে যাবো নিজের সংসারে।
– হেলাল হাফিজ

ইহাই হয়তো আমার শেষ বার্তা,আজ হইতে বাংলাদেশ স্বাধীন।আমি বাংলাদেশের জনগনকে আহবান জানাইতেছি যে,যে যেখানে আছো,যাহার যা কিছু আছে,তাই নিয়ে রুখে দাড়াও,সর্বশক্তি দিয়ে হানাদার বাহিনীকে প্রতিরোধ করো।পাকিস্তানি দখলদার বাহিনীর শেষ সৈন্যটিকে বাংলার মাটি হইতে বিতাড়িত না করা পর্যন্ত এবং চূড়ান্ত বিজয় অর্জন না করা পর্যন্ত লড়াই চালিয়ে যাও
– বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান

কথা ছিলো একটি পতাকা পেলে আমি আর লিখবো না বেদনার অঙ্কুরিত কষ্টের কবিতা কথা ছিলো একটি পতাকা পেলে ভজন গায়িকা সেই সন্ন্যাসিনী সবিতা মিস্ট্রেস ব্যর্থ চল্লিশে বসে বলবেন,–’পেয়েছি, পেয়েছি’।
– হেলাল হাফিজ

Md Jahidul Islam

আমি মোঃ জাহিদুল ইসলাম। জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলা বিভাগ হতে স্নাতক এবং স্নাতকোত্তর ডিগ্রি সম্পন্ন করে 2018 সাল থেকে সমাজের অর্থনৈতিক, রাজনৈতিক, সামাজিক,মানবিক দৃষ্টিভঙ্গি অবলোকন করে- জীবনকে পরিপূর্ণ আঙ্গিকে নতুন করে সাজানোর আশাবাদী। নতুনের প্রতি মানুষের আকর্ষণ চিরস্থায়ী- তাই নবরুপ ওয়েবসাইটে নিয়মিত লেখালেখি করি।
Back to top button