টিপস

১৭ মার্চ কি দিবস? ১৭ মার্চ পালনের পদ্ধতি ২০২২

আপনি কি জানেন ১৭ ই মার্চ কি দিবস? অথবা আপনি কি বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন কিভাবে পালন করবেন এ বিষয়ে ভাবছেন? আপনি যদি এই সমস্ত বিষয়ে কোনো ধারণা না নিয়ে থাকেন তাহলে কোন ব্যাপার নয়। আমরাই আপনাদের ১৭ ই মার্চ কি দিবস এবং বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন কিভাবে উদযাপন করবেন সে বিষয়ে আপনাদের অবগত করব। তাই ১৭ মার্চ সম্পর্কে বিস্তারিত জানার জন্য আজকের এই নিবন্ধটি আপনাকে মনোযোগ দিয়ে পড়তে হবে। তাহলে আপনি ১৭ ই মার্চ সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জানাবেন এবং বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন উদযাপনের যাবতীয় টিপস পেয়ে যাবেন।

১৭ মার্চ কি দিবস?

সম্মানিত পাঠক, আমরা সকলেই জানি ১৭ মার্চ জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মদিন। এছাড়াও বাংলাদেশ সংবিধান অনুযায়ী স্বীকৃত ১৭ ই মার্চ জাতীয় শিশু কিশোর দিবস। এইদিন সর্বসম্মতিক্রমে বাংলাদেশ জাতীয় শিশু দিবস পালনের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে । তাই বাংলাদেশে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে 17 মার্চ জাতীয় শিশু দিবস পালন করা হয়ে থাকে। তাই জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মদিন কে আরো উৎসবমুখর করে তোলার জন্য এই দিনটিকে জাতীয় শিশু দিবস হিসেবে ঘোষণা করা হয়।

১৭ ই মার্চ পালনের পদ্ধতি

নানান ধরনের পদ্ধতিতে ১৭ ই মার্চ উদযাপন করা যেতে পারে। আমরা এই নিবন্ধে বিভিন্ন পদ্ধতিতে 17 ই মার্চ উদযাপন এর পদ্ধতি গুলো আপনাদের জানিয়ে দেবো।

আপনি যদি প্রথম শ্রেণি হতে দশম শ্রেণী পর্যন্ত বিভিন্ন স্কুলে ১৭ ই মার্চ উদযাপন এর কথা ভেবে থাকেন তাহলে আমরা বেশ কিছু পদ্ধতি আপনাদের জানিয়ে দেবো। ১৭ ই মার্চ জাতীয় শিশু দিবস এবং জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মদিন উদযাপন উপলক্ষে স্কুল গুলোতে যে যে অনুষ্ঠানের আয়োজন করা যেতে পারে।

১৭ মার্চ জাতীয় শিশু দিবস

চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা: এদিন জাতীয় শিশু দিবস হওয়ায় 17 ই মার্চ উদযাপন উপলক্ষে প্রথম থেকে পঞ্চম শ্রেণি পর্যন্ত শিক্ষার্থীদের নিয়ে চিত্রাংকন প্রতিযোগিতার আয়োজন করা যেতে পারে। চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতার মূল বিষয়বস্তু হবে বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধ। অর্থাৎ বঙ্গবন্ধু মুক্তিযুদ্ধ বিষয় নিয়ে প্রথম থেকে পঞ্চম শ্রেণীর শিক্ষার্থী চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করবে।

কবিতা আবৃত্তি প্রতিযোগিতা: ষষ্ঠ থেকে দশম শ্রেণীর শিক্ষার্থীরা বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে কবিতা আবৃত্তি প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করতে পারে। আপনি আপনার প্রতিষ্ঠানের জন্য 17 ই মার্চ উদযাপন উপলক্ষে বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে কবিতা আবৃত্তি প্রতিযোগিতা আয়োজন করতে পারবেন।

কবিতা লিখুন প্রতিযোগিতা: জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কে কেন্দ্র করে একাদশ এবং দ্বাদশ শ্রেণীর শিক্ষার্থী কবিতা লিখুন প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করতে পারে। বিষয়: বঙ্গবন্ধু এবং বাংলাদেশ। অর্থাৎ একাদশ থেকে দ্বাদশ শ্রেণীর শিক্ষার্থী বৃন্দ বঙ্গবন্ধু এবং বাংলাদেশ নিয়ে কবিতা লিখুন প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করবে। এক্ষেত্রে শিক্ষার্থীরা নিজের মেধা এবং মন দিয়ে বঙ্গবন্ধু এবং বাংলাদেশ নিয়ে কবিতা লিখতে এবং সবচেয়ে ভালো কবিতা যে লিখবে সে হবে প্রথম।

এছাড়াও বিভিন্ন অফিস-আদালতে বঙ্গবন্ধু ও জাতীয় শিশু দিবস নিয়ে আলোচনা সভার আয়োজন করা যেতে পারে। এরপর বিভিন্ন অফিস-আদালতে কেক কাটা সহ দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠানের আয়োজন করা যেতে পারে।

Md Jahidul Islam

আমি মোঃ জাহিদুল ইসলাম। জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলা বিভাগ হতে স্নাতক এবং স্নাতকোত্তর ডিগ্রি সম্পন্ন করে 2018 সাল থেকে সমাজের অর্থনৈতিক, রাজনৈতিক, সামাজিক,মানবিক দৃষ্টিভঙ্গি অবলোকন করে- জীবনকে পরিপূর্ণ আঙ্গিকে নতুন করে সাজানোর আশাবাদী। নতুনের প্রতি মানুষের আকর্ষণ চিরস্থায়ী- তাই নবরুপ ওয়েবসাইটে নিয়মিত লেখালেখি করি।
Back to top button