ট্রাভেলট্রেন

মিতালী এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী, ভাড়া, অনলাইন টিকেট

মিতালি এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী, ভাড়া এবং অনলাইন টিকিট বুকিং সিস্টেম আজকের এই নিবন্ধে আলোচনা করা হবে। আপনি যদি মিতালী এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী, ভাড়া, টিকিট মূল্য অনুসন্ধান করেন তাহলে আমাদের এই ওয়েবসাইট থেকেই সমস্ত তথ্য সংগ্রহ করতে পারবেন। সম্প্রতি বাংলাদেশ থেকে ভারতের নিউ জলপাইগুড়ি পর্যন্ত মিতালি এক্সপ্রেস ট্রেন চলাচল শুরু করেছে। ট্রেনটি এই রুটে এখন থেকে নিয়মিতভাবে চলাচল করবে। মিতালী এক্সপ্রেস সম্প্রতি চলাচল শুরু করলো এই ট্রেনটি নতুন নয়। এর আগে বহুবার মিতালী এক্সপ্রেস ট্রেন বাংলাদেশ থেকে ভারতে চলাচল করেছিল। দুই দেশের সরকারের সমঝোতার মাধ্যমে আবারও নতুন করে মিতালি এক্সপ্রেস ট্রেন এই রুটে চলাচল শুরু করে।

মিতালী এক্সপ্রেস ট্রেন বাংলাদেশের বিমানবন্দর রেল স্টেশন থেকে যাত্রা করে ভারতের নিউ জলপাইগুড়ি রেলওয়ে স্টেশন পর্যন্ত চলাচল করবে। দুই দেশের মধ্যে ভ্রমণ ইচ্ছুক যাত্রীরা বাংলাদেশ বিমানবন্দর রেলওয়ে স্টেশনে ইমিগ্রেশন সম্পন্ন করে ট্রেনে অবস্থান করবে এবং বিরতিহীনভাবে এই ট্রেনটি ভারতের নিউ জলপাইগুড়ি স্টেশনে পৌঁছবে।

অপরদিকে, নিউ জলপাইগুড়ি রেলওয়ে স্টেশনে ইমিগ্রেশন সম্পন্ন করে ট্রেনের অবস্থান করতে হবে এবং বিরতিহীনভাবে বাংলাদেশের রাজধানীর বিমানবন্দর রেল স্টেশনে পৌঁছবে। দুই দেশের মধ্যে আন্ত যোগাযোগের ক্ষেত্রে মিতালী এক্সপ্রেস ট্রেনটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে বলে আমরা মনে করি।

মিতালী এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী

মিতালি এক্সপ্রেস ট্রেনটি চালুর আগে এর সময়সূচী প্রদান করা হয়। ট্রেনটি বাংলাদেশ থেকে ভারত এবং ভারতে থেকে বাংলাদেশের চলাচল করবে সপ্তাহে চার দিন। ট্রেনটি নিউ জলপাইগুড়ি রেলওয়ে স্টেশন থেকে বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকার উদ্দেশ্যে সপ্তাহেরও বুধবার ছেড়ে যাবে ।অপর দিকে, মিতালি এক্সপ্রেস বাংলাদেশ থেকে ঢাকার ক্যান্টনমেন্ট রেল স্টেশন হতে সোম ও বৃহস্পতিবার ভারতের জলপাইগুড়ি রেল স্টেশনে উদ্দেশ্যে ছেড়ে যাবে। এছাড়া আমি একটি টেবিল এর মাধ্যমে মিতালী এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী বিস্তারিত আলোচনা করেছি।

স্থানের নাম চাড়ার সমায় পৌঁছার সমায়
ঢাকা টু জলপাইগুড়ি রাত ৯ টা ৫০ মিনিট সকাল ৭ টা ৫ মিনিট
জলপাইগুড়ি টু ঢাকা দুপুর ১২ টা ১০ মিনিট রাত ১০ ৩০ মিনিট

মিতালি এক্সপ্রেস ট্রেনের টিকিট মূল্য

মিতালী এক্সপ্রেস ট্রেনটি একটি আন্তর্জাতিক রুটে চলাচল। স্বাভাবিকভাবে আন্তর্জাতিক রুটে চলাচল করে যেকোনো পরিবহনের টিকিট মূল্য একটু বেশি হয়ে থাকে। অনুযায়ী মিতালী এক্সপ্রেস ট্রেনের টিকিট মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে। সম্পূর্ণ এয়ারকন্ডিশন সম্মিলিত এক্সপ্রেস ট্রেন কেবিন সুবিধা পাওয়া যাবে। এছাড়া মিতালী এক্সপ্রেস ট্রেন টিকেট এসি সিটের ব্যবস্থা আছে। অপরদিকে সবচেয়ে কম দামে মিটালি এক্সপ্রেস ট্রেনে ভ্রমণ করতে হলে এসি সিটের ব্যবস্থা আছে সেক্ষেত্রে টিকিট মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ২০৮০ টাকা।
এখানে উল্লেখ্য যে, মিতালি এক্সপ্রেস ট্রেনে ভ্রমণ করতে হলে ভ্রমণ ফ্রি টিকিট এর সাথে সংযুক্ত থাকে।

মিতালি এক্সপ্রেস ট্রেনের মূল্য
মিতালি এক্সপ্রেস ট্রেনের মূল্য

মিতালি এক্সপ্রেস টিকেট বুকিং

বাংলাদেশ রেলওয়ে বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী মিতালী এক্সপ্রেস ট্রেনের টিকিট এ পর্যন্ত অনলাইনে পাওয়া যাচ্ছে না। শুধুমাত্র নির্ধারিত কয়েকটি পয়েন্ট থেকে মিতালি এক্সপ্রেস ট্রেনের টিকিট সংগ্রহ করা যেতে পারে। বাংলাদেশ এবং ভারতের উভয় প্রান্ত হতে মিতালী এক্সপ্রেস ট্রেনের টিকিট সংগ্রহ করতে পারবেন একজন যাত্রী।

সেক্ষেত্রে, বাংলাদেশে হতে কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশন, চট্টগ্রাম রেলওয়ে স্টেশন, অপরদিকে ভারতের কলকাতা টার্মিনাল স্টেশন, ফেয়ারলিপ্লেস রেলওয়ে বিল্ডিং থেকে মিতালী এক্সপ্রেসের টিকেট পাওয়া যাবে।

মিতালী এক্সপ্রেস বাংলাদেশের উত্তরবঙ্গ মানুষের জন্য বহু কাঙ্ক্ষিত একটি ট্রেন। ট্রেনটি বহু প্রচেষ্টার পর আবারও চালু হয়েছে। ট্রেনটি চালু হওয়ার পরেও বাংলাদেশের উত্তরবঙ্গের মানুষ এই ট্রেনটি নিয়ে বেশি সুযোগ সুবিধা উপভোগ করতে পারবে না। কারণ মিতালী এক্সপ্রেস ট্রেনটি বিরতিহীন হওয়ায় এই ট্রেনটি উত্তরবঙ্গের নীলফামারী এবং চিলাহাটি রেলওয়ে স্টেশনের যাত্রাবিরতি দেবেনা। সেক্ষেত্রে উত্তরবঙ্গের মানুষ যদি ট্রেনে ভ্রমণ করতে চায়, তাকে সাড়ে 300 কিলোমিটার পাড়ি দিয়ে বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকায় এসে ট্রেনে ভ্রমণ করতে হবে।

বাংলাদেশের উত্তরবঙ্গ মানুষের কথা বিবেচনা করে বাংলাদেশে ট্রেইলার প্রতি আমরা বিশেষ আবেদন করব যাতে করে মিতালী এক্সপ্রেস ট্রেনটি উত্তরবঙ্গের রেলওয়ে স্টেশন গুলোতে যাত্রাবিরতি দেয়।

Md Jahidul Islam

আমি মোঃ জাহিদুল ইসলাম। জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলা বিভাগ হতে স্নাতক এবং স্নাতকোত্তর ডিগ্রি সম্পন্ন করে 2018 সাল থেকে সমাজের অর্থনৈতিক, রাজনৈতিক, সামাজিক,মানবিক দৃষ্টিভঙ্গি অবলোকন করে- জীবনকে পরিপূর্ণ আঙ্গিকে নতুন করে সাজানোর আশাবাদী। নতুনের প্রতি মানুষের আকর্ষণ চিরস্থায়ী- তাই নবরুপ ওয়েবসাইটে নিয়মিত লেখালেখি করি।
Back to top button