স্টাটাস

মহান স্বাধীনতা দিবসের স্ট্যাটাস ২০২২ [২৬ শে মার্চের পোস্ট]

আপনি কি ২৬ মার্চ অর্থাৎ স্বাধীনতা দিবসের স্ট্যাটাস অনুসন্ধান করছেন? আমরা স্বাধীনতা দিবসের স্ট্যাটাস নিবন্ধ সংযুক্ত করেছি। আপনারা চাইলে স্বাধীনতা দিবসের স্ট্যাটাস এই নিবন্ধ হতে সংগ্রহ করতে পারবেন। আমরা স্বাধীনতা দিবস স্ট্যাটাস অত্যন্ত যত্নসহকারে আপনাদের জন্য তুলে ধরেছি। আপনি স্বাধীনতা দিবসের স্ট্যাটাস গুলো কপি করে আপনার প্রিয়জনদের মধ্যে শেয়ার করতে পারবেন। এবং সকলের মধ্যে স্বাধীনতার শুভেচ্ছা পাঠাতে পারবেন। স্বাধীনতা দিবস স্ট্যাটাস বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করে সকলকে স্বাধীনতা দিবসের শুভেচ্ছা জানাতে পারবেন।

আজকে মহান স্বাধীনতা দিবস উদযাপনের জন্য আপনি আপনার ফেসবুক ওয়ালে শুভেচ্ছা স্ট্যাটাস প্রদান করতে পারেন। আপনারা শুভেচ্ছা স্ট্যাটাস দেওয়ার জন্য আমাদের এই নিবন্ধ হতে সাহায্য নিতে পারবেন।

বাংলাদেশের স্বাধীনতা দিবসের স্ট্যাটাস ২০২২

সম্মানিত পাঠক, 26 মার্চ মহান স্বাধীনতা দিবস। ১৯৭১ নয় মাস রক্তক্ষয়ী সংগ্রামের মাধ্যমে বাংলাদেশের স্বাধীনতা অর্জিত হয়েছে। এর আগে 25 শে মার্চ পাকিস্তানী হানাদার বাহিনী দেশের সাধারণ জনগণের ওপর পৃথিবীর নিশংস গণহত্যা চালায়। ঢাকার ঘুমন্ত নিরস্ত্র বাঙালিদের উপর সেই গণহত্যার টার্গেট ছিল বিভিন্ন স্কুল কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক হলগুলো। এছাড়া ইউপি আর, সেনানিবাস, পুলিশ ফাঁড়ি পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর টার্গেট ছিল।

ঐদিন মধ্যরাতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে গ্রেফতার করে পশ্চিম পাকিস্তানে নিয়ে যাওয়া হয়। বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর এক বার্তায় এদেশের স্বাধীনতা ঘোষণা করেন। শুরু হয় রক্ত ক্ষয় সংগ্রাম। সেই প্রত্যক্ষ সংগ্রাম চলে দীর্ঘ নয় মাস। নয় মাস রক্তক্ষয়ী সংগ্রামের মধ্য দিয়ে আমাদের পূর্ণ স্বাধীনতা অর্জন হয় 16 ডিসেম্বর 1971। তাই কষ্টটা তো এই স্বাধীনতা আমাদের অহংকার। আমরা এই নিবন্ধে স্বাধীনতা দিবসের স্ট্যাটাস সংগ্রহ করে আপনাদের জন্য দিয়েছি। আপনারা চাইলে স্বাধীনতা দিবসের স্ট্যাটাস গুলো কপি করে আপনার প্রয়োজন বন্ধু-বান্ধবের মাঝে শেয়ার করতে পারবেন।

দি দেশের জন্য তোমার ভেতরে আবেগ না থাকে তাহলে তোমার শরীরে রক্ত না জল বইছে।

যুদ্ধ খারাপ জিনিস, কিন্তু হয়তো সবথেকে খারাপ নয়। কিন্তু এক ক্ষয়ে যাওয়া অধঃপতিত দেশাত্ববোধ যা মনেকরে কোনো পরিস্থিতিতেই যুদ্ধ প্রয়োজন নেই – অনেক বেশি ভয়ানক ও চিন্তার। – John Stuart Mill

কেবলমাত্র বোমা বা বন্দুক দিয়ে বিপ্লব আসেনা, বিপ্লবের তলোয়ার ধার পায় বৈপ্লবিক চিন্তাশক্তিতে। – ভগৎ সিং

”স্বাধীনাতা তুমি ……” মহান স্বাধীনতার জন্য যে সকল অকুতোভয় বীর সন্তানরা বিলিয়ে দিয়েছিলেন তাদের তাজা প্রাণ সে সকল শহীদদের স্মরণে….. সকলকে মহাণ স্বাধীনতা দিবসের অভিনন্দন।

”একটি বাংলাদেশ তুমি… জনতার, সারা বিশ্বের বিস্ময় তুমি আমার অহংকার।” সারা বিশ্বের বিস্ময় এই বাংলাদেশের জন্য আসুন আমরা সবাই মিলে কাজ করি। স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীতে এটাই হোক আমাদের শপথ।

”এক নদী রক্ত পেরিয়ে বাংলার স্বাধীনতা আনলে যারা আমরা তোমাদের ভুলবনা…” — বাংলার স্বাধীনতার জন্য যাদের রক্তের নদী বয়ে গিয়েছিল বাংলার বুকে সেই সকল শহীদদের আত্মার মাগফেরাত কামনায়– স্বাধীনতা দিবস সফল হোক।

 ”প্রথম বাংলাদেশ আমার শেষ বাংলাদেশ জীবন বাংলাদেশ আমার মরণ বাংলাদেশ…” আমাদের জীবন-মরণ এই বাংলাদেশের স্বাধীনতা দিবসে সবাইকে সুভেচ্ছা।

”স্বাধীনতা তুমি ……” মহান স্বাধীনতার জন্য যে সকল অকুতোভয় বীর সন্তানরা বিলিয়ে দিয়েছিলেন তাদের তাজা প্রাণ সে সকল শহীদদের স্মরণে….. সকলকে মহাণ স্বাধীনতা দিবসের অভিনন্দন।

এভাবে আরো অনেকগুলো sms এসেছিল। তবে যে জন্য আজকের এই লেখা সেটা মুলত নিচের sms দুটির জন্য

 ”’ একটি বাংলাদেশ তুমি… জনতার, সারা বিশ্বের বিস্ময় তুমি আমার অহংকার।”” সারা বিশ্বের বিস্ময় এই বাংলাদেশের জন্য আসুন আমরা সবাই মিলে কাজ করি। মহান স্বাধীনতা দিবসের এটাই হোক আমাদের শপথ।

”প্রথম বাংলাদেশ আমার শেষ বাংলাদেশ জীবন বাংলাদেশ আমার মরণ বাংলাদেশ…” আমাদের জীবন-মরণ এই বাংলাদেশের স্বাধীনতা দিবসে সবাইকে শুভেচ্ছা।

তোমার মাঝেই স্বপ্নের শুরু,তোমার মাঝেই শেষ ৷তবু ভালো লাগা ভালোবাসাময় তুমি,আমার বাংলাদেশ ৷

২৬ মার্চ তুমি একটি উজ্জ্বল নক্ষত্র। বাংলা মায়ের আকাশ পাড়ে, তোমার জন্যই আজি বইছে আনন্দ, উল্লাস স্নেহ মাখা বাংলার হৃদয় জুড়ে। সকলকে মহান স্বাধীনতা দিবসের শুভেচ্ছা।

এই স্বাধীনতা তখনি আমার কাছে প্রকৃত স্বাধীনতা হয়ে উঠবে, যেদিন বাংলার কৃষক-মজুর ও দুঃখী মানুষের সকল দুঃখের অবসান হবে – বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান

বাংলার মুখ আমি দেখিয়াছি, তাই আমি পৃথিবীর রূপ খুঁজিতে যাই না আর – জীবনানন্দ দাশ

স্বাধীনতা তুমি পিতার কোমল জায়নামাজের উদার জমিন। – শামসুর রাহমান

যে মাঠ থেকে এসেছিল স্বাধীনতার ডাক, সেই মাঠে আজ বসে নেশার হাট – রুদ্র মুহাম্মদ শহীদুল্লাহ

Md Jahidul Islam

আমি মোঃ জাহিদুল ইসলাম। জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলা বিভাগ হতে স্নাতক এবং স্নাতকোত্তর ডিগ্রি সম্পন্ন করে 2018 সাল থেকে সমাজের অর্থনৈতিক, রাজনৈতিক, সামাজিক,মানবিক দৃষ্টিভঙ্গি অবলোকন করে- জীবনকে পরিপূর্ণ আঙ্গিকে নতুন করে সাজানোর আশাবাদী। নতুনের প্রতি মানুষের আকর্ষণ চিরস্থায়ী- তাই নবরুপ ওয়েবসাইটে নিয়মিত লেখালেখি করি।
Back to top button