ফিনান্স

দারাজ বিকাশ কাশব্যাক অফার 2022

আপনি কি দারাজ থেকে কেনাকাটার কথা ভাবতেছেন? অথবা দারাজ থেকে কেনাকাটায় বিকাশ পেমেন্ট ক্যাশ ব্যাক অফার জানতে চান? তাহলে আপনি সঠিক জায়গায় এসেছেন ।এই নিবন্ধে আমরা দারাজ বিকাশ ক্যাশ ব্যাক অফার সম্পর্কে আলোচনা করতে যাচ্ছি। দারাজে কেনাকাটায় বিকাশ পেমেন্ট আপনি আকর্ষণীয় ক্যাশব্যাক পাচ্ছেন। সেক্ষেত্রে আপনাকে কিছু শর্তাবলী পালন করতে হবে। নিম্নে আমি দারাজ বিকাশ ক্যাশ ব্যাক অফার সম্পর্কে আলোচনা করতে যাচ্ছি। আপনি যদি দারাজ বিকাশ ক্যাশব্যাক অফার সম্পর্কে সম্পূর্ণ তথ্য জানতে চান তাহলে এই নিবন্ধটি মনোযোগ সহকারে পড়ুন। তাহলে আপনি দারাজ বিকাশ ক্যাশব্যাক অফার সম্পর্কে পূর্ণাঙ্গ ধারণা পাবেন।

দারাজ বিকাশ কাশব্যাক অফার 2022

বিকাশ বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান মোবাইল ব্যাংকিং প্রতিষ্ঠানের। বাংলাদেশের বর্তমানে কোনো নাগরিককে খুঁজে পাওয়া যায় না, যাদের মোবাইলে বিকাশ নেই। বর্তমান ডিজিটাল বাংলাদেশের সর্ব ক্ষেত্রে অনলাইনে লেনদেন একটি জনপ্রিয় মাধ্যম হয়ে দাঁড়িয়েছে। বিকাশে মানুষ বিদ্যুত বিল, পানির বিল, ক্রেডিট কার্ডের বিল সহ অনলাইন অফলাইন সব কেনাকাটায় ব্যবহার করতে পারে। সেই জনপ্রিয় তাকে ধরে রাখার জন্যে দারাজ বিকাশ পেমেন্ট নির্দিষ্ট পরিমাণ ক্যাশব্যাক দিচ্ছে। ক্যাশব্যাক নেওয়ার জন্য আপনাকে অবশ্যই কিছু শর্ত পালন করতে হবে।

দারাজ বিকাশ পেমেন্ট ২০% কাশব্যাক

দারাজ বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান অনলাইন কেনাকাটা ওয়েবসাইট। এবং দারাজের জনপ্রিয়তা দিন দিন আরো বৃদ্ধি পাচ্ছে। দারাজ অনলাইন শপিং অ্যাপ্লিকেশন যেটি আপনি আপনার মোবাইলে ডাউনলোড করে অনলাইনে কেনাকাটা করতে পারেন। এবং অনলাইনে সেই কেনাকাটার বিল পরিশোধ করতে পারেন দারাজ আপনার ক্রয় কৃত পণ্যটি আপনার ঘরের দরজায় পৌঁছে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেয়।

দারাজ কোম্পানিটি 2012 সালে পাকিস্তানের প্রতিষ্ঠিত হয়। এবং পরবর্তীতে 2015 সালে দারাজ বাংলাদেশ নামে বাংলাদেশে ব্যবসা শুরু করে। 2018 সালে দারাজ কোম্পানিটি কে আবার চীনের বিখ্যাত হোম ডেলিভারি কোম্পানি আলিবাবা কিনে নেয়। মূলত আলিবাবা দারাজকে কিনে নেওয়ার পর এর জনপ্রিয়তা বাংলাদেশ বহুগুণ বৃদ্ধি পায়। 2018 সালের পর থেকে দারাজ বাংলাদেশ ব্যাপক জনপ্রিয়তা এবং সুনামের সাথে ব্যবসা করে আসছে। দারাজ বর্তমানে বাংলাদেশ ছাড়াও শ্রীলঙ্কা, পাকিস্তান, নেপাল, ভুটান এবং মায়ানমারের কোম্পানিটির নাম্বার ওয়ান শপিং ওয়েবসাইট হিসেবে তুলে ধরেছে।

দারাজ বিকাশ কাশব্যাক অফারের বিস্তারিত

  • Daraz ওয়েবসাইট (daraz.com) থেকে যেকোনো কেনাকাটার পেমেন্ট বিকাশ করলেই ২০% ইনস্ট্যান্ট ক্যাশব্যাক
  • অফার চলাকালীন লিমিট: ২০০ টাকা।
  • পেমেন্ট চ্যানেল: অ্যাপ থেকে অথবা অনলাইন পেমেন্ট বিকাশ করতে হবে।

তাই বাংলাদেশের ব্যাপকসংখ্যক গ্রাহক প্রতিদিন দারাজে কেনাকাটা করে। দারাজের অধিকাংশই পেমেন্ট দিতে হয় অনলাইন প্লাটফর্মে। সে ক্ষেত্রে বাংলাদেশের মানুষের জনপ্রিয় মোবাইল ব্যাংকিং প্রতিষ্ঠান বিকাশ ব্যবহার করে থাকে। তাই দারাজ এবং বিকাশ যৌথভাবে সেই সকল গ্রাহকদের অনলাইন পেমেন্ট ক্যাশব্যাক অফার সহ বিভিন্ন অফার দিয়ে থাকে। আমরা আগেই বলেছি আমাদের এই নিবন্ধটি হতে যাচ্ছে দারাজ বিকাশ পেমেন্ট এর ক্যাশব্যাক অফার সম্পর্কে। তাই দারাজ বিকাশ পেমেন্ট এর ক্যাশব্যাক অফার সম্পর্কে আমরা সবিস্তারে আলোচনা করছি।

দারাজ এবং বিকাশ কেনাকাটার পেমেন্ট বিকাশ মাধ্যমে করলে আপনাকে নিশ্চিত ২০ পার্সেন্ট ক্যাশব্যাক প্রদান করবে। দারাজ ১১.১১ বিগ সেল উপলক্ষে কেনাকাটায় বিকাশ পেমেন্ট করলে 20 পার্সেন্ট ডিসকাউন্ট। সেক্ষেত্রে, গ্রাহক বিকাশ অ্যাপ দিয়ে বা *২৪৭# ডায়েল করে পেমেন্ট বিকাশ করে অফার নিতে পারবেন। অ্যাপ দিয়ে পেমেন্ট এর ক্ষেত্রে আপনাকে বিকাশ অ্যাপ এ গিয়ে বিল-পে অপশনে গিয়ে দারাজের মার্চেন্ট নাম্বারে বিল পে করতে হবে। এবং *২৪৭#  ডায়েল করে পেমেন্ট বিকাশ করে অফার নিতে পারবেন । সেক্ষেত্রে, আপনাকে বিল পে  অপশনে গিয়ে দারাজ কর্তৃক প্রদত্ত মার্চেন্ট একাউন্টে বিল পে করতে হবে ।

বিকাশ দারাজ কাশব্যাক অফারের  অফারের শর্তাবলীঃ 

  • ক্যাম্পেইনে অংশগ্রহণকারী মার্চেন্টের একাউন্টে অ্যাপ থেকে কিংবা অনলাইন পেমেন্ট বিকাশ করলে ইনস্ট্যান্ট ক্যাশব্যাক পাওয়া যাবে।
  • গ্রাহকের বিকাশ একাউন্টে ইনস্ট্যান্ট ক্যাশব্যাক পৌঁছে যাবে।
  • গ্রাহকের সক্রিয় একাউন্ট থেকে পর্যাপ্ত ব্যালেন্স থাকা সাপেক্ষে পেমেন্ট বিকাশ করলে ইনস্ট্যান্ট ক্যাশব্যাক পাওয়া যাবে।
  • ক্যাশব্যাক পেতে হলে গ্রাহকের একাউন্ট স্ট্যাটাস ও ইনকামিং লেনদেন অবশ্যই সক্রিয় থাকতে হবে।
  • গ্রাহকের একাউন্টের স্ট্যাটাসের ইস্যুজনিত কারণ ছাড়া যদি অন্য কোনো অজানা/ অপ্রত্যাশিত কারণে ক্যাশব্যাক বিতরণ ব্যর্থ হয়, সেক্ষেত্রে ক্যাম্পেইন শেষ হওয়ার পর বিকাশ ২ মাসের মধ্যে ১ বার ক্যাশব্যাক বিতরণের চেষ্টা করবে। সকল উপায়ই যদি ব্যর্থ হয়, তাহলে আর কোনো চেষ্টা করা হবে না এবং গ্রাহক ক্যাশব্যাক অফারের জন্য আর বিবেচিত হবেন না।
  • বিকাশ একাউন্ট থেকে সফল লেনদেনের মাধ্যমে ক্যাশব্যাক পাওয়া যাবে।
  • বিকাশ  এবং অংশগ্রহণকারী মার্চেন্ট কোনো রকম পূর্ব ঘোষণা ছাড়াই যেকোনো উপায়ে ক্যাম্পেইনের নিয়ম ও শর্তাবলি পরিবর্তন/সংশোধন বা যেকোনো সময় সম্পূর্ণ ক্যাম্পেইন বাতিল করার অধিকার সংরক্ষণ করে।
  • কোনো নির্দিষ্ট লেনদেন এবং/অথবা গ্রাহকের লেনদেন কার্যক্রম যদি এরূপ কোনো যুক্তিসংগত সংশয় তৈরি করে যে, গ্রাহক কর্তৃক ক্যাশব্যাক সুবিধার অপব্যবহার হয়েছে, সেক্ষেত্রে বিকাশ এবং অংশগ্রহণকারী মার্চেন্ট গ্রাহকের ক্যাশব্যাক পে আউট বাতিলের অধিকার সংরক্ষণ করে।
  • যদি মার্চেন্ট কোনো পণ্যের প্রাপ্যতা ও ডেলিভারি নিশ্চিত করতে না পারে, সেক্ষেত্রে বিকাশ তার দায়ভার নেবে না, বিকাশ কেবল গ্রাহকের কাছে পেমেন্ট সেবা সরবরাহ করে। মার্চেন্ট গ্রাহককে কোনো পণ্য সঠিকভাবে ডেলিভারি করতে না পারার কারণে যদি মূল্য ফেরত দেয় এবং তাহলে বিকাশ ঐ নির্দিষ্ট লেনদেনের জন্য গ্রাহকের ক্যাশব্যাক লিমিট পুনর্বহাল করতে বাধ্য নয়। গ্রাহক ক্যাশব্যাক অফারটি গ্রহণ করেছেন বলে ধরে নেওয়া হবে।
  • যদি কোনো বিকাশ গ্রাহক মার্চেন্টের অ্যাপ বা ওয়েবসাইটে ভুল পেমেন্ট করে ফেলেন, সেক্ষেত্রে গ্রাহককে ওই মার্চেন্টের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ করা হচ্ছে।

আমরা এই ওয়েবসাইটে বিকাশ সম্পর্কিত বিভিন্ন ক্যাশব্যাক অফার সহ সব ধরনের অফার নিয়ে আলোচনা করি। সবচেয়ে সঠিক এবং সবচেয়ে সবার আগে সেই অফার গুলো পেতে আমাদের এই ওয়েবসাইটে সাথেই থাকুন ধন্যবাদ।

Jahidul Islam

আমি মোঃ জাহিদুল ইসলাম। জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলা বিভাগ হতে স্নাতক এবং স্নাতকোত্তর ডিগ্রি সম্পন্ন করে 2018 সাল থেকে সমাজের অর্থনৈতিক, রাজনৈতিক, সামাজিক,মানবিক দৃষ্টিভঙ্গি অবলোকন করে- জীবনকে পরিপূর্ণ আঙ্গিকে নতুন করে সাজানোর আশাবাদী। নতুনের প্রতি মানুষের আকর্ষণ চিরস্থায়ী- তাই নবরুপ ওয়েবসাইটে নিয়মিত লেখালেখি করি।
Back to top button